হাটহাজারীতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৪০ ঘরের বিদ্যুৎ তার গেলো কোথায়!

হাটহাজারী প্রতিনিধি: হাটহাজারীর পৌরসভার আলমপুর পাহাড়ী এলাকায় আশ্রয়ণ প্রকল্পের নব নির্মিত ৪০টি ঘরের বিদ্যুৎ কুটি থেকে সার্ভিস তার চুরির অভিযোগ উঠেছে।গত সপ্তাহে এ ঘটনা সংগঠিত হলেও ব্যবস্থা নেইনি কর্তৃপক্ষ।সরকারের এ ভুমিহীনদের জন্য নির্মাণ করা ঘরের এ বিদ্যুৎ তার চুরি হওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে চলছে আলোচনা সমালোচনা।সপ্তাহ পার হলেও এখনো বিদ্যুৎ তারের কোন হদিস পাইনি।এ ভাবেই ঘরগুলো পড়ে আছে এখনো।তবে দারোয়ার থাকার পরেও কি ভাবে এতগুলো ঘরের বিদ্যুৎ তার চুরি হয়েছে তা নিয়েও রয়েছে নানান প্রশ্ন এলাকার জনসাধারনের।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পৌর এলাকার আলমপুরের অংশে প্রায়টি ঘরের মধ্যে এখনো কাজ চলমান রয়েছে।চতুর্থ দাপে মোট ২৬১টি ঘর বুঝিয়ে দিলেও দেখা মেলেনি অনেক পরিবারের।এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে দূর্বৃত্তের একটি চক্র নাকি নৈশ প্রহরীর যোগসাজশে ৪০টি ঘরের বিদ্যুৎ তার চুরি করে কেটে নিয়ে যায় এমনও প্রশ্ন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি।দায়িত্বে অবহেলার কারনে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলেও তারা দাবি করেন।

নৈশ প্রহরীর সাথে কথা বলতে গেলে সে এড়িয়ে যান। তবে কৌশলে জিজ্ঞাসা করলে বলেন, ৪০টি ঘরের বিদ্যুৎ তার মিটারের গোড়া থেকে সহ কেটে নিয়ে যায়।সেদিন রাতে মুখোর প্রভাবের ভয়ে আমি নিরাপদ স্থানে সরে পড়ি।তাই কি ভাবে চুরি হয়েছে আমি জানিনা।

এ বিষয়ে উপ-প্রকল্প প্রকৌশলী আহসানুল হক জানান, গত সপ্তাহে আলমপুরে  আশ্রয়ন প্রকল্পের ৪০টি ঘরের মিটার সংযুক্ত বিদ্যুৎ কুটি থেকে তার সার্ভিস তার চুরি হয়েছে।যার আনুমানিক মূল্য ৪০ থেকে ৫০হাজারের মত। আপনার বিস্তারিত জানতে ইউএনও স্যারের সাথে যোগাযোগ করেন।

বিদ্যুৎ তার চুরির বিষয় জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শাহিদুল আলম বলেন চল্লিশটি ঘরের বিদ্যুতিক তার চুরি হয়েছে তা আমরা অবগত আছি।আমরা তার জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছি।তিনি আরো বলেন ঘূর্ণিঝড় মোখার কারণে সবাই যখন নিরাপদ স্থানে চলে গেছে,তেমনি ভাবে দারোয়ান নিরাপদ স্থানে চলে গেছেন।এই সুবাদে চোর চক্র সুযোগটি কাজে লাগিয়ে দিলেন।

এ বিষয়ে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবুল বাশার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান প্রতিবেদককে বলেন,সে বিষয়ে আমি জানিনা।ঘরের তার চুরি হলে সরকার যাদের ঘর দিয়েছে ওরাই সেটা মেরামত করবে। সরকার তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিয়েছেন,ঘরের তার চুরি হয়েছে সেটা তারা নিজেরাই করতে হবে।

ক্যালেন্ডার
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
Scroll to Top