সৌদি মানব সম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের সাথে বাংলাদেশের (বিএমটি) এর চুক্তি স্বাক্ষর

সৌদি আরবে আসতে ইচ্ছুক বাংলাদেশি দক্ষ/ আধা দক্ষ কর্মীদের বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা যাচাই করে সনদ প্রদান করা হবে।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সৌদি আরব প্রতিনিধি: সৌদি আরবের বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে সৌদি মানব সম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাথে বাংলাদেশের বিমইটি (BMET- Bureau of Manpower, Employment and Training) এর সাথে বাংলাদেশী কর্মীদের স্কিল ভেরিফিকেশন বিষয়ে এক চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

এর ফলে সৌদি আরবে আসতে ইচ্ছুক বাংলাদেশি দক্ষ/ আধা দক্ষ কর্মীদের বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা যাচাই করে সনদ প্রদান করা হবে। সনদের মেয়াদ হবে পাঁচ বছর। যে সনদ থাকার ফলে সৌদি আরবে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে চাকুরি পাওয়া সহজ হবে এবং বেতন ভাতাদি ও ওই বিষয়ের দক্ষতা অনুযায়ী পাওয়া যাবে। এ সনদের মাধ্যমে একবার সৌদি আরব আসলে আর কোন পরীক্ষা দেয়ার প্রয়োজন হবেনা।

সৌদি মানব সম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে তাকামল এ স্কিল ভেরিফিকেশনের কাজ বাংলাদেশে করবে।

যে সকল বিষয়ে এ স্কিল ভেরিফিকেশন করা হবে তা হলো- প্লাম্বিং, ইলেকট্রিশিয়ান, মেকানিক, ওয়েল্ডিং, কার্পেন্টার পেইন্টার, প্লাস্টারার, বিল্ডারসহ মোট ২৩টি বিষয়ে এ স্কিল ভেরিফিকেশন প্রদান করা হবে।

সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) এ চুক্তি স্বাক্ষর বিষয়ে বলেন, দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর এ চুক্তিটি স্বাক্ষর হয়েছে, আশা করি আগামী দিনে বাংলাদেশ থেকে দক্ষ/ আধা দক্ষ আরও কর্মীরা সনদ নিয়ে সৌদি আরবে আসবে। যার ফলে সৌদি আরবে ভালো চাকুরী পাওয়া সহজ হবে এবং সৌদি আরব থেকে আমাদের রেমিট্যান্স প্রবাহ আরও বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি আশাবাদ প্রকাশ করেন।

ঢাকায় এ বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষরের সময় BMET এর মহাপরিচালক মোঃ শহীদুল আলম, প্রবাসী কল্যাণ সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন , বাংলাদেশে নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ঈসা বিন ইউসুফ আল দুহাইলান ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ উপস্থিত ছিলেন।