শিক্ষার্থীরা ইউনিক আইডি পাচ্ছে জানুয়ারিতে

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আগামী জানুয়ারিতে পাচ্ছে ইউনিক আইডি কার্ড বা অভিন্ন পরিচয়পত্র। ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ১ কোটি ৬০ লাখ শিক্ষার্থী এই কার্ড পাবে। তবে সবাইর তথ্য এখনও না পাওয়ায় একসঙ্গে কার্ড দেওয়া সম্ভব হবে না। নির্বাচিত কিছু উপজেলার ছাত্রছাত্রীরা ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে এই কার্ড হাতে পাবে।

গত বছর থেকেই শিক্ষার্থীদের রোল নম্বরের পরিবর্তে ইউনিক আইডি দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছিল সরকার। এ লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহ শুরু করে শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর (ব্যানবেইস) অধীনে ইন্টিগ্রেটেড এডুকেশনাল ইনফরমেশন সিস্টেম (আইইআইএমএস) প্রকল্প কর্তৃপক্ষ। প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্মনিবন্ধনসহ ১৫ ধরনের তথ্য জানাতে অভিভাবকদের নির্দেশ দেওয়া হয়।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের লাইব্রেরির বই নেওয়া থেকে শুরু করে ফল প্রকাশ, রেজিস্ট্রেশন, বৃত্তি, উপবৃত্তির অর্থ নেওয়াসহ সব ধরনের সেবা দেওয়া হবে এই আইডির মাধ্যমে। শিক্ষার্থীর বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হলে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় তাদের ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে এই ইউনিক আইডিই জাতীয় পরিচয়পত্রে রূপান্তর করবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ছাত্রছাত্রীদের রোল নম্বরের পরিবর্তে ইউনিক আইডি নম্বর দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীর নামের বানানের প্রথম বর্ণ অনুসারে নির্দিষ্ট ডিজিটের আইডি নম্বর থাকবে। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, রোল নম্বর ব্যবস্থার বিলুপ্তি হবে। রোল নম্বরের কারণে অনভিপ্রেত প্রতিযোগিতা হয়। শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেক সময় সহযোগিতার মনোভাবের অভাব ঘটে। রোল নম্বরের কারণে সামনে আসতে চায় সবাই। আইডি নম্বর দিলে শিক্ষার্থীদের মধ্যে সৎ প্রতিযোগিতার মনোভাব তৈরি হবে।

নম্বর থাকলে ট্র্যাক করা যাবে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ছে কিনা। ইউনিক আইডির অগ্রগতি বিষয়ে জানতে চাইলে আইইআইএমএস প্রকল্পের উপপরিচালক ড. নাসির উদ্দিন গনি গনমাধ্যমকে বলেন, মোট ১ কোটি ৬০ লাখ ৭০ হাজার ৫৭ শিক্ষার্থী প্রকল্পের আওতায় রয়েছে।

তাদের মধ্যে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে ৯৭ লাখ ১৬ হাজার ২৫৮ জনের। এর মধ্যে ইউনিক আইডির জন্য ব্যবহার উপযোগী তথ্য রয়েছে ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ১২২ জনের। তথ্যে গরমিল রয়েছে প্রায় ২ লাখ ৯৩ হাজার শিক্ষার্থীর।