শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপন উপলক্ষে চন্দনাইশে আলোচনা সভা

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাছরীন আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

চন্দনাইশ প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের চন্দনাইশে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলা ভিডিও কনফারেন্স রুমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাছরীন আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবদুল জব্বার চৌধুরী, চন্দনাইশ পৌরসভার মেয়র মাহবুবুল আলম খোকা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) জিমরান মোহাম্মদ সায়েক।

উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর আকতার সানজিদা জাফর পপি সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলী হিরু, মৎস কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসান আহসানুল কবীর, কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ স্মৃতি রাণী সরকার, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রতন কুমার সাহা, যুবউন্নয়ন কর্মকর্তা আ.ন.ম ছালেহ , শিক্ষা কর্মকর্তা শাখাওয়াত হোসেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রিয়াদ হোসেন, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রাসেল চৌধুরী, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপসহকারী প্রকৌশলী ফরহাদ উদ্দিন, তথ্যসেবা কর্মকর্তা শাপলা খাতুন, চন্দনাইশ ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত ষ্টেশন অফিসার মো. আবুল মনসুর চৌধুরী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কাসেম মাহবুব উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিজয়ানন্দ বড়ুয়া, গাছবাড়িয়া নিত্যানন্দ গৌরচন্দ্র মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ, ফাতেমা জিন্নাহ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ওসমান আলী, উপজেলা কৃষক লীগ সাধারণ সম্পাদক নবাব আলী, চন্দনাইশ পৌরসভা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, হাশিমপুর ইউনিয়ন যুবলীগ আহবায়ক সাইফুল ইসলাম, উপজেলা তাতী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের নিশ্চিত পরাজয় জানতে পেরে দেশ স্বাধীন হওয়ার বাংলাদেশ যাতে মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে সেই লক্ষ্য নিয়ে বাঙালি জাতিকে মেধাশূণ্য করার জন্য ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর পরিকল্পিতভাবে বুদ্ধিজীবীদের নৃশংসভাবে হত্যা করেছে। এসময় পাক হানদার বাহিনীদের সহযোগিতা করেছেন এদেশের রাজাকার,আলবদর, আল শামস বাহিনী। স্বাধীনতা বিরোধী দলগুলো শহীদ বুদ্ধিজীবীদের বাড়ি চিনিয়ে দিয়েছে। বক্তারা শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানান এবং তাঁদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।