রিয়াদে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত

রিয়াদে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সৌদি আরব প্রতিনিধি: সৌদি আরবের রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে আনন্দঘন পরিবেশে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে দেশের ইতিহাস জানানোর আহবান জানালেন রাষ্ট্রদূত।

দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) সৌদি আরবে বসবাসরত নতুন প্রজন্মকে দেশের প্রতি ভালোবাসা, মহান মুক্তিযুদ্ধ, জাতির পিতার জীবন ও কর্ম সম্পর্কে জানানোর জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান।

তিনি বলেন, দূতাবাসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সবসময়ই স্কুলের শিক্ষার্থীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এছাড়া বিশেষ দিবসে প্রতিটি স্কুলেই শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে থাকে যাতে প্রবাসে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্ম দেশের ইতিহাস সম্পর্ক জানতে পারে ও তাদের মধ্যে দেশপ্রেম গড়ে উঠতে পারে।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আজ সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গণে পতাকা উত্তোলন করেন রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। এরপর রাষ্ট্রদূত দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে দূতাবাসে স্থাপিত অস্থায়ী স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। বাংলাদেশ কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠন ফুল দিয়ে স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। রিয়াদে বসবাসরত বিভিন্ন শ্রেণী পেশার অভিবাসীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যার অবিসংবাদিত নেতৃত্বে আমরা বাংলাদেশ নামক একটি স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি।

রাষ্ট্রদূত এসময় বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত ত্রিশ লক্ষ শহীদ ও নির্যাতিত দুই লক্ষাধিক মা-বোনদের স্মৃতির প্রতি। এসময় মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বঙ্গবন্ধু তাঁর সারা জীবন উৎসর্গ করেছিলেন একটি সুখী সমৃদ্ধ স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার জন্য। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে ও ২০৪১ সালে একটি উন্নত সমৃদ্ধশালী স্মার্ট বাংলাদেশে পরিণত করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন আজ বিশ্বের কাছে এক রোল মডেল বলে বিবেচিত। বিজয়ের ৫১ বছর পূর্তিতে দেশে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি ও খাদ্য উৎপাদনে ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আজ এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। সৌদি আরবে প্রায় ২৭ লাখ বাংলাদেশি অভিবাসীর কর্মসংস্থানের পাশপাশি দু’দেশের ব্যবসা বাণিজ্য ও বিনিয়োগের নতুন দ্বার উম্মোচিত হয়েছে। বাংলাদেশ আজ সৌদি ব্যবসায়ীদের কাছে এক আকর্ষণীয় বিনিয়োগ গন্তব্য বলে বিবেচিত হচ্ছে।

রাষ্ট্রদূত মোঃ জাবেদ পাটোয়ারী সৌদি প্রবাসীদের দেশের উন্নয়নে বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণের আহবান জানান। তিনি বলেন, সৌদি আরব থেকে দেশে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স প্রেরিত হয়, বৈধ পথে ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে টাকা পাঠালে তা আরও অনেকগুণ বৃদ্ধি পাবে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও মার্কিন ডলারের রিজার্ভ বৃদ্ধির জন্য রাষ্ট্রদূত প্রবাসীদের প্রতি এ আহবান জানান। রাষ্ট্রদূত মহান বিজয় দিবসের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে প্রবাসীদের যার যার অবস্থান থেকে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখার আহবান জানান।

অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন, দূতাবাসের কার্যালয় প্রধান কাউন্সেলর মোঃ বেলাল হোসেন।

আলোচনা সভার শুরুতে দিবসটি উপলক্ষ্যে প্রদত্ত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। আলোচনা শেষে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারের সদস্যবর্গ, মুক্তিযোদ্ধা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দেশের সার্বিক মঙ্গল ও উন্নতি কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।