রাঙ্গুনিয়া থেকে অপহরণ, মুক্তিপণ নিয়েও হদিস মিলছে না প্রবাসীর

নিখোঁজ মোহাম্মদ হারুন (৪৫)।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় নিজ বাড়ি থেকে নগরে যাওয়ার পথে অপহরণের শিকার হয়েছেন এক ব্যক্তি। তাঁর নাম মোহাম্মদ হারুন (৪৫)। স্বজনদের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় স্বজনরা সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায়।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) রাত ৮ টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে চট্টগ্রাম শহরে যাওয়ার পথেই অপহরণের শিকার হন মোহাম্মদ হারুন (৪৫)। তিনি উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের পূর্ব সরফভাটা ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সিকদার পাড়া গ্রামের ডাক্তার আমিন শরীফ সিকদারের ছেলে ও প্রবাসী।

অপহৃত প্রবাসীর স্বজনরা বলেন, মঙ্গলবার রাত ৮ টার দিকে চট্টগ্রাম নগরে ব্যক্তিগত কাজে যাওয়ার জন্য নিজ বাড়ি থেকে বের হন হারুন। এরপর থেকে ২/৩ ঘন্টা তার সাথে পরিবারের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। খোঁজ না পেয়ে রাতেই দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। পরে রাত ১১ টার দিকে স্বজনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ম্যাসেঞ্জারে একটি ভয়েস ম্যাসেজ আসে।

ভয়েসে বলা হয়, “৫০ হাজার টাকা না পাঠালে আমাকে তাঁরা মেরে ফেলবে।” পরে অপহরণকারীদের সাথে যোগাযোগ করে মোবাইল ব্যাংকিং নগদের মাধ্যমে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ পাঠানো হয়। তবে টাকা পাঠানোর পর থেকে অপহরণকারীদের ব্যবহৃত মুঠোফোন নাম্বার বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। এখনো পর্যন্ত হারুনের কোনো হদিস পাওয়া যাচ্ছে না।
স্বজনদের বরাত দিয়ে সরফভাটা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, রাতে অপহরণ হওয়ার পর স্বজনরা প্রশাসনের দারস্থ হয়। পরে স্বজনদের কাছে অপহরণকারীরা একটি ভয়েস ম্যাসেজ পাঠায় হারুনকে মেরে ফেলা হবে। তবে এখনো পর্যন্ত সঠিকভাবে বলা যাচ্ছেনা তিনি কোথায় আছেন।

দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল ইসলাম বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে হারুনের স্বজনেরা থানায় একটি জিডি করে। তবে স্বজনদের কাছে একটি ভয়েস ম্যাসেজ আসার পর নগদের মাধ্যমে মুক্তিপণের টাকা পাঠানো হয় বলে জেনেছি। এরপর থেকে অপহরণকারীদের সব মুঠোফোন নাম্বার বন্ধ রয়েছে। নাম্বারগুলো নিয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে তিনি বর্তমানে কোথায় আছেন। ইতোমধ্যে পুলিশ গিয়েছে স্বজনদের বাড়িতে। তাঁকে উদ্ধারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।