মহেশখালীর কুতুবজোম মাতাল হয়ে বাড়ি ঘরে হামলা ও ভাংচুর

লেদু মিয়া (৬০)।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

মহেশখালী প্রতিনিধি: মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের তাজিয়াকাটায় মদ খেয়ে মাতাল অবস্থায় স্থানীয় লেদু মিয়ার বাড়ি ঘরে হামলার অভিযোগ উঠেছে মাদক কারবারি ও মাদকাসক্ত আব্দু করিম গংদের বিরুদ্ধে। এসময় উক্ত বাড়ির লোকজন বাঁধা দিলে মাদক আসক্ত  আব্দু করিম আরও কয়েকজন মাদকাসক্ত তার আত্মীয় আব্দু রশিদ,শফি আলম,হারুনসহ৭/৮ জন লোক দা ও লাঠিসোঁটা নিয়ে ৩ জনকে মারাত্মক ভাবে আহত করে।

আহতরা হলেন, তাজিয়াকাটা গ্রামের লেদু মিয়া (৬০),তার পূত্র মাহামুদুর করিম (৩৮) ও ইউনুস(৩৪) তার পূত্র বধু ।এদের মধ্যে লেদু মিয়ার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থা অবনতি হলে তাকে কক্সবাজার মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

১৮ ডিসেম্বর রবিবার সন্ধ্যার সময় কুতুবজোম ইউনিয়নের তাজিয়াকাটা এলাকায় এঘটনা ঘটে।

সূত্রে জানা যায়, লেদু মিয়ার ভাইয়ের সাথে কয়েকদিন আগে সাথে আব্দু করিমের পরিবারের সাথে কথা-কাটাকাটি হয়। এর জের ধরেই মাদকাসক্তরা লেদু মিয়ার বাড়িঘরে ভাংচুরের চেষ্টা চালায়। এতে লেদু মিয়ার ছেলে ইউনুস ও মাহামুদুর করিম বাঁধা দিলে তাদেরকে মারধর করে হাত ভেঙে দেন এবং  লেদু মিয়া মিয়া আসলে তাকেও মারাত্মক ভাবে মাথায় আঘাত করে বলে জানা যায়। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেছে বলে জানা যায়।

আহত ইউনুস জানান, আমার চাচাদের সাথে তাদের বিরোধ ছিল।এটি নিয়ে তাদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি জেরে ধরে মদ খেয়ে আমাদের বাড়িতে ভাংচুর চালিয়েছে।এতে বাঁধা দিলে আব্দু করিম, আব্দু রশিদ,শফি আলম,হারুনসহ আরও কয়েকজন এসে হামলা চালিয়েছে। এতে আমরা ৩ জন আহত হয়েছি।আমার বাবা লেদু মিয়ার অবস্থা খুবই খারাপ। তাকে কক্সবাজারে মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গেছে। বিষয়টি আমরা আইনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ বিষয়ে মহেশখালী থানার ওসি প্রনব চৌধুরী বলেন, এ বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে এবং লিখিত  অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।