মঙ্গলবার পুনরায় লংমার্চ শুরু করতে চান ইমরান

ছবি- সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের ওয়াজিরাবাদে হামলার পর থেমে যাওয়া লংমার্চ কাল মঙ্গলবার পুনরায় রাজধানীর দিকে যাত্রা শুরু করবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

আলজাজিরা জানিয়েছে, স্থানীয় সময় রবিবার লাহোরের একটি হাসপাতাল থেকে ভিডিও বার্তায় এই মন্তব্য করেছেন ইমরান খান। হামলায় পায়ে গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর এই হাসপাতালেই তার চিকিৎসা চলেছে। সফল অস্ত্রোপচার শেষে তাকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

ইমরান খান বলেছেন, ওয়াজিরাবাদের যেখানে আমি এবং ১১ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন, যেখানে মোয়াজ্জেম শহীদ হয়েছেন, মঙ্গলবার সেখান থেকেই আমাদের যাত্রা পুনরায় শুরু হবে।

তিনি আরো বলেছেন, পুরোপুরি সুস্থ না হওয়ায় লংমার্চে তিনি যোগ দেবেন না। তবে লংমার্চ রাওয়ালপিন্ডি পৌঁছালে তিনি তাতে যোগ দেবেন।

ইমরানের দাবি, বৃহস্পতিবার লংমার্চে হামলার ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ এবং একজন শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা জড়িত রয়েছে।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী এরই মধ্যে জানিয়েছে, তাদের কোনো কর্মকর্তা ইমরানকে হত্যাচেষ্টার সঙ্গে জড়িত নয়।

পাকিস্তান ডেমোক্র্যাটিক মুভমেন্টের (পিডিএম) প্রধান মাওলানা ফজলুর রেহমান বলেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ওপর হামলার বিষয়টি ‘নাটক’ ছিল। অভিনয় দক্ষতায় শাহরুখ খান ও সালমান খানকে তিনি (ইমরান) ছাড়িয়ে গেছেন বলেও মন্তব্য করেছেন ফজলুর।

ডন নিউজ জানিয়েছে, ইমরান খানের ওপর হামলা নিয়ে রবিবার সংবাদ সম্মেলন করেছেন ফজলুর রেহমান। সেখানে তিনি পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর ওপর হওয়া হামলা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করার পাশাপাশি এটিকে ‘নাটক’ বলে আখ্যায়িত করেন।

রবিবারের ওই সংবাদ সম্মেলনে তিনি হামলার ঘটনাকে ‘নাটক’ হিসেবে অভিহিত করে বলেছেন, অভিনয়ে (ভারতীয় অভিনেতা) শাহরুখ এবং সালমান খানকে ছাড়িয়ে গেছেন ইমরান খান। প্রথম দিকে আমি ওয়াজিরাবাদে লংমার্চে হামলার কথা শুনে ইমরান খানের প্রতি সহানুভূতি জানিয়েছিলাম। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে এটি একটি নাটক ছিল।

গত ৩ নভেম্বর পিটিআইয়ের লংমার্চে হামলার ‘পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত’ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

তিনি আরো বলেছেন, হামলায় ইমরান খানের ইনজুরিই এটি নিয়ে সন্দেহ সৃষ্টি করতে যথেষ্ট। ইমরানকে লক্ষ্য করে একটি গুলি করা হয়েছে নাকি তার বেশি  এবং আঘাতটি ‘এক পায়ে না উভয় পায়ে’ তা স্পষ্ট নয়।

ফজলুর রেহমান আরো বলেছেন, এটা বেশ চমকপ্রদ যে ইমরান খানকে কাছাকাছি কোনো হাসপাতালে (ওয়াজিরাবাদে) ভর্তি করার পরিবর্তে লাহোরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এটা কিভাবে সম্ভব যে একটা বুলেট টুকরো টুকরো হয়ে গেল। আমরা বোমার টুকরো শুনেছি, কিন্তু বুলেটের নয়।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান গত ৩ নভেম্বরের হামলার ঘটনা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি করার চেষ্টা করছেন। (ইমরানের) মেডিকেল রিপোর্টে অসঙ্গতি রয়েছে এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

ফজলুর বলেন, পিটিআইয়ের লংমার্চের নিরাপত্তার দায়িত্ব ছিল পাঞ্জাব সরকারের। সে কারণে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকারকে ইমরান খানের প্রতি ‘নরম’ না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, পিটিআই চেয়ারম্যান তার পছন্দের নতুন সেনাপ্রধানের নিয়োগ ছাড়া আর কিছুই চান না।