বাঁশখালীতে চাঞ্চল্যকর দুধু মিয়া হত্যার প্রধান আসামি পুলিশের জালে

ছোটন (২৩)।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

বাঁশখালী প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম বাঁশখালী’র গন্ডামারা ইউনিয়নের এসএস পাওয়ার প্লান্ট রোডস্থ গন্ডামারা ব্রীজের পশ্চিম পার্শ্বে রাস্তার উপর মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারী) রাত ৮ টার সময় দুধু মিয়া নামক একজন সেলসম্যান ছুরিকাঘাতে নিহত হয়। এই ঘটনার প্রধান আসামি ছোটন নামক একজন পুলিশের জালে ধরা পড়ল। জানা যায়, তিনি খুন করে রেহাই পাওয়ার জন্য বেশী চল চাতুরী করছিল।

প্রধান আসামি হচ্ছে বাঁশখালী থানাধীন গন্ডামারা ইউনিয়নের পুর্ব বড়ঘোনা ৩নং ওয়ার্ডস্ত লালীর বড় নতুন বাড়ী নেজাম উদ্দীনের পুত্র ছোটন (২৩) বর্তমানে পুর্ব বড়ঘোনা,লালীর বড় নতুন বাড়ি,৭নং ওয়ার্ড বসবাস করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঘটনার পর কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী ধারণা করেন, ছুরিকাঘাতে মৃত্যুবরণ এই সেলসম্যানকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে। তবে এই গন্ডামারা ব্রীজ এলাকায় সব সময় প্রতিদিন কোন না কোন ঘটনা ঘটছে। আমাদের জানা মতে প্রতিদিনের ন্যায় সকালে পণ্য সরবরাহ করে আসতো দোকানে দোকানে এই সেলসম্যান,  রাতে গিয়ে সেই টাকা কালেকশন করত। কালেকশন করেন তার চাম্বল ইউপিস্ত বাসায় ফেরার পথে হয়ত তার ব্যাগে প্রচুর টাকা আছে এগুলো চিন্তায় করার জন্য তাকে খুন করা হয়েছে।

বাঁশখালীর সচেতন মহল ফের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিত নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা সহ জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে।

নিহত ব্যক্তি হলেন রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানাধীন রিরামপুর এলাকার হযরত আলীর পুত্র দুধু মিয়া (৩৮)। তিনি বাঁশখালীতে তিব্বত কোম্পানির অধীনস্থ কহিনুর কেমিক্যাল ল্যাবরেটরিজ লিমিটেড এর সেলসম্যান হিসেবে নিযুক্ত আছেন।

এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানার ওসি তদন্ত সুমন বণিক মুঠোফোনে বলেন, বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ কামাল উদ্দিন এর নির্দেশনা মোতাবেক বাঁশখালী থানার চৌকস একটা টিম অভিযান পরিচালনা করে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আসামীকে বাঁশখালী’র ইকোপার্ক এর সামনে থেকে ছোটনকে দুপুর ২ টায় আটক করা হয়। এই ঘটনার সাথে আর কারা কারা জড়িত ম্যাজিস্ট্রেটের জবানবন্দিতে তা রয়েছে। বাকি আসামিদের তদন্তের স্বার্থে নাম প্রকাশ করতেছি না। আমাদের অভিযান এখনো চলমান রয়ে