পটিয়ায় মার্কেট দখলে নিতে চাইল সন্ত্রাসীরা

শান্তিরহাট আবদুল ছবুর মার্কেট দখলে নিতে চেষ্টা করেছে সন্ত্রাসীরা।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

পটিয়া প্রতিনিধি: পটিয়া উপজেলার কুসুমপুরা শান্তিরহাট দিনদিন অশান্ত হয়ে উঠছে। প্রায় সময় এখানে দখল বেদখলের ঘটনা ঘটছে।

রবিবার (১৫ জানুয়ারি) শান্তিরহাট আবদুল ছবুর মার্কেট দখলে নিতে চেষ্টা করেছে সন্ত্রাসীরা। মার্কেটের দোকানদারগণ পুলিশ হেল্পলাইন ৯৯৯ এ কল দিলে পুলিশ এসে সন্ত্রাসীদের ধাওয়া দেয়। ফলে মার্কেটের দোকানদারেরা রক্ষা পায়। দোকানদার নাজিম উদ্দীন জানান, মার্কেট মালিক আবদুল ছবুর থেকে দোকানঘর ভাড়া নিয়ে দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে ৬ জন দোকানদার ব্যবসা চালিয়ে আসছে। বর্তমানে এ ৬ জন দোকানদারের মধ্যে রয়েছে নাজিম উদ্দীন, জামাল উদ্দীন, কাজী আশরাফ আলী, সমীরণ নাথ, অংশুমন নাথ। আবদুল ছবুরের মৃত্যুর পর তার ওয়ারিশের পক্ষে ৬ জন মহিলা ভাড়া নিয়ে থাকে। এরমধ্যে ছবুরের তিন পুত্র মার্কেট ভেঙ্গে বহুতল ভবন নির্মাণের চেষ্টা করলে আবদুল ছবুরের ওয়ারিশ ৬ মহিলা পটিয়া যুগ্ন জেলা জজ আদালতে ২০২০ সালে একটি মামলা দায়ের করে।

উক্ত মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ার পূর্বে আবদুল ছবুরের তিনপুত্র স্থানীয় লোকমান নামের এক ব্যক্তিকে মার্কেট দখলের ক্ষমতা দিলে সে সম্প্রতি সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে মার্কেটের ২য় তলার ভাড়াটিয়াদের উচ্ছেদ করে দোকানের লোহার সাটার লুট করে নিয়ে যায়। এছাড়া  রবিবার উক্ত লোকমান সন্ত্রাসী নিয়ে ২য় তলার ছাদ ভাঙ্গা শুরু করলে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। দোকানদারগণ ৯৯৯ নম্বরে কল করেন। পুলিশ এসে ভাঙ্গচুর কার্যক্রম বন্ধ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে আবদুল ছবুরের পুত্র আবদুল খালেক থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উক্ত জায়গা আমরা তিন ভাইয়ের নামে আমার পিতা হেবা করে দিয়েছে। মার্কেট সংস্কারের জন্য আমরা লোকমানকে মার্কেট ভাঙ্গার দায়িত্ব দিয়েছি।

এ বিষয়ে পটিয়া থানার কালারপোল পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ শহীদুল ইসলাম জানান- ৯৯৯ এর কল পেয়ে আমি একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছি।