টাকা জমিয়ে লম্বা পতাকা তুলল আর্জেন্টিনার ভক্ত

রাঙ্গুনিয়ায় ৩০০ ফুট লম্বা আর্জেন্টিনার পতাকার সামনে উচ্ছ্বসিত সমর্থকদের একাংশ।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি: রাঙ্গুনিয়ায় ৩০০ ফুট লম্বা পতাকা বানিয়ে চমক সৃষ্টি করেছেন মো. সেকান্দর বাদশা নামে দিনমজুর এক আর্জেন্টিনার সমর্থক। যেটি বানিয়ে তোলা পর্যন্ত তার প্রায় ৩০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এক বছর ধরে টাকা জমিয়ে এই টাকা জোগান দিয়েছেন তিনি।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার শিলক ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড কুদ্দুস মার্কেট এলাকায় এই পতাকাটি সড়কের পাশে উঠানো হয়েছে। এটি টাঙাতে ব্যবহার করা হয়েছে ৬০টি বাঁশ। পতাকাজুড়ে রয়েছে মেসি সহ আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়দের ছবি। রয়েছে কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার শিরোপা অর্জনেরও আলোকচিত্র। তবে অন্য দেশের পতাকাকে ভালবেসে নিজ দেশের পতাকাকেও তিনি সম্মান দেখিয়েছেন। এজন্য তিনি পতাকাজুড়ে তুলেছেন ২০টি বাংলাদেশের পতাকা।

এ সময় কথা হয় পতাকার উদ্যোক্তা মো. সেকান্দর বাদশার সাথে। তিনি বলেন, ছোটবেলা থেকেই আর্জেন্টিনা দলকে সমর্থন করি। ফেসবুকে, টিভিতে অনেক বড় বড় পতাকা বানানোর খবর পেয়েছি। এটি মেসির শেষ বিশ্বকাপ। তাই মেসিকে ভালবেসে আর্জেন্টিনার সমর্থনে এই পতাকা তৈরি করে প্রদর্শনী করেছি।”

তিনি বলেন, “দৈনিক ৫০০ টাকা বেতনে দিনমজুর হিসেবে কাজ করি আমি। সেখান থেকে গত এক বছর ধরে টাকা জমিয়ে এই পতাকা বানিয়েছি। আর্জেন্টিনা দলের প্রতি আমার ভালোবাসা থেকেই পতাকা তৈরি করা। এবার বিশ্বকাপের ট্রফি আর্জেন্টিনার হাতেই উঠবে, সেটিই প্রত্যাশা আমার।”

এদিকে পতাকাটিকে ঘিরে সমর্থকরা শনিবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে র‍্যালি বের করেছেন। বাদ্যের তালে তালে আর্জেন্টিনা ভক্তরা কুদ্দুস মার্কেট থেকে র‍্যালিটি বের করেন। সেখানে কয়েকশ আর্জেন্টিনার ভক্ত অংশগ্রহণ করে।

পতাকা দেখতে আসা স্থানীয় ইউপি সদস্য হান্নান তালুকদার বলেন, আমার জানামতে এত বড় পতাকা রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় আর কেউ এখনো তৈরি করেনি। বিশাল পতাকা প্রদর্শনী ও র‍্যালি হবে শুনেই দেখতে আসলাম। সেকান্দর বাদশা পেশায় দিনমজুর ও গরীব হলেও তার মনটা অনেক বড়। তাই হয়ত, কষ্ট করে টাকা জমিয়ে এই কাজটা তিনি করেছেন।

মো. পারভেজ নামে স্থানীয় অপর এক ব্যক্তি বলেন, “মানুষ বিনোদনের জন্য অনেকেই অনেক কিছু করেন। সেকান্দর ভাইও মনের আনন্দে এটা করেছেন। অনেকে এটিকে পাগলামি বলতে পারেন, কিন্তু আমি বলবো এটি তার মনে আনন্দের খোরাক।”