জোরারগঞ্জে বিজয় মেলা থেকে বাড়ি ফেরার পথে গুলিবিদ্ধের ঘটনায় র্যাবের হাতে গ্রেপ্তার ৪

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর গুলিবিদ্ধের ঘটনায় ৪ আসামীকে আটক করেছে র্যাব।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

মিরসরাই প্রতিনিধি: মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার শেষে ভোররাতে মেলা থেকে বাড়ি ফেরার পথে শৃঙ্খলা কমিটির দায়িত্বে থাকা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর গুলিবিদ্ধের ঘটনায় ৪ আসামীকে আটক করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) র‌্যাবের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এই ঘটনার প্রধান ৪ আসামীদের কুমিল্লা জেলার চান্দিনা এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো, জোরারগঞ্জ থানার সোনাপাহাড় এলাকার মোস্তফা মাষ্টারের ছেলে আল মামুন (২২), মনির আহম্মদের ছেলে মাইন উদ্দিন (২৫), আর্মি কামালের ছেলে মো. জুয়েল, মৃত মহিউদ্দিনের ছেলে জামাল উদ্দিন (২৫)।

র‌্যাব জানায়, গত ২২ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১০ দিন ব্যাপী জোরারগঞ্জ থানাধীন জোরারগঞ্জ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে প্রতিবছরের ন্যায় মুক্তিযুদ্ধ বিজয় মেলার আয়োজন করা হয়।এরই ধারাবাহিকতায় গত ১ জানুয়ারি ভোর আনুমানিক সাড়ে ৪ টায় মেলার শৃঙ্খলা কমিটির সদস্যরা মেলা শেষ করে বাড়ী ফেরার পথে জোরারগঞ্জ বাজারে পৌছলে মাইন উদ্দিন টিটুর নেতৃত্বে ২৫ থেকে ৩০ জনের অস্ত্রধারীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের উপর আক্রমণ করে। এক পর্যায়ে অস্ত্রধারীদের এলোপাতাড়ি গুলিতে মেলার শৃংখলা কমিটির সদস্য ছাত্রলীগ নেতা কাউছার আহম্মদ,জোরারগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাহেদ বিন কামাল অনিক, সম্পাদক সেফায়েত হোসেন,রিয়াজ উদ্দীন(৩৬),আমজাদ হোসেন ইমন,(২১) ইমতিয়াজ উদ্দিন (২০), মিরাজ আকবর শাকিব (১৯), সাইফুদ্দিন রিফাত (১৮), তারেক হাসান (২৫) সরোয়ার হোসেন (১৮),রাহুল বড়ুয়া, গুলিবিদ্ধ ও ছুরির আঘাতে গুরুতর আহত হন এ ঘটনার প্রেক্ষিতে মেলার শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য কাউছার আহাম্মদ আরিফ গত ৪ জানুয়ারি জোরারগঞ্জ থানায় ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও ১০ থেকে ১২ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। এর পরে র‌্যাব বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করে।

এ বিষয়ে র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. নূরুল আফছার বলেন, আটকের পর তাদের সংশিষ্ট থানায় সোর্পদ করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার ঘটনা স্বীকার করেছে আসামীরা