ঘুমধুম এসএসসি পরীক্ষার্থীদের পাশে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ

পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের সিদ্ধান্তে উখিয়ার কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরিবর্তিত করা হলে তাদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বাস সার্ভিস চালু করে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

উখিয়া প্রতিনিধি: সম্প্রতি মিয়ানমারে মটারশেল, একে-৪৭ এর গুলি, ফাইটার হেলিকপ্টার ও যুদ্ধবিমান আন্তর্জাতিক সীমারেখা না মেনে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এসে পড়ে। উক্ত বিষয়গুলো নিয়ে নাইক্ষ‍‍্যংছড়ি সীমান্তে বসবাসরত অজস্র মানুষের মনে আতঙ্ক দেখা দেয়। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে স্থানীয় শ্রমজীবী মানুষ সহ সদ্য এসএসসি পরীক্ষার্থীরা।

তাই সেইসকল পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের সিদ্ধান্তে উখিয়ার কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরিবর্তিত করা হলে তাদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বাস সার্ভিস চালু করে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ।

সীমান্তে বৈরী পরিস্থিতির মধ্যে আতঙ্কে ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে পরিক্ষা হলেও পরে পরিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে উখিয়ার কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে পরিক্ষা কেন্দ্র করা হয়৷ এমতাবস্থায় নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের সুবিধা বিবেচনা ও যথাসময়ে পরিক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য বাকি ৭টি পরিক্ষায় ৩টি বাস নিয়ে পরিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে কক্সবাজার জেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনানের নির্দেশে উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

তারই ধারাবাহিকতায় প্রতিদিন সকল পরীক্ষার্থীরা সকাল ৯ টায় ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সেই বাসে করেই কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষায় অংশ নিতে আসেন। এবং পরিক্ষা শেষে নিরাপদভাবে তাদের বাড়ি বাড়ি পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, “কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা মারুফ আদনান ভাইয়ের নির্দেশে ফ্রি বাস সার্ভিস ও যানজট সমাধানে কাজ করেছি উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ। তারই প্রেক্ষিতে সীমান্ত পরিস্থিতির কারণে বাসের ব্যবস্থা করা হয় যাতে শিক্ষার্থীরা নির্বিঘ্নে পরিক্ষা দিয়ে নিরাপদে বাড়ি ফিরতে পারে।”

কক্সবাজার জেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান বলেন, “ঘুমধুম শিক্ষার্থীদের নিরাপদে পরীক্ষা কেন্দ্রে ও বাড়িতে পৌঁছে দিতে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ বাসের ব্যবস্থা করে দিয়েছে৷”