গিলের সেঞ্চুরি, চারশ ছাড়িয়ে ভারতের লিড

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: মিরাজের বল রিভার্স সুইপে চার মারলেন দারুণ আত্মবিশ্বাস নিয়ে। ৯৫ থেকে শুভমান গিলের রান ৯৯। ১ রান পেলেই প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি পেয়ে যাবেন। পরের দুই বল ডট। সময় নিলেন গিল। এর আগে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে নব্বইয়ের ঘরে আউট হয়েছেন। চতুর্থ বলে এবার ডাউন দ‌্য উইকেটে এলেন। ঠিকঠাক টাইমিং মিলিয়ে বল পাঠালেন বাউন্ডারিতে। চারে গিল পৌঁছে গেলেন টেস্ট সেঞ্চুরিতে। শেষ পর্যন্ত ওই মিরাজের বলেই থেমেছেন গিল। দ্রুত রান বাড়াতে গিয়ে ঠিক পরের ওভারেই মিড উইকেটে ক‌্যাচ দেন। ১৫২ বলে ১০ চার ও ৩ ছক্কায় ১১০ রানে থামেন গিল। সঙ্গী হারানোর পর পূজারা তুলে নেন ফিফটি। ৮৭ বলে ৫ বাউন্ডারিতে তার রান ৫০। ভারতের লিড চারশ ছাড়িয়েছে। ৫০ ওভার শেষে ভারতের রান ২ উইকেটে ১৮৮। লিড ৪৪২ রানের।

দ্বিতীয় সেশনেও ভারতের দাপট

ম‌্যাচের নাটাই এখন ভারতের হাতে। সফরকারীদের দাপটে স্রেফ অসহায় স্বাগতিকরা। তৃতীয় দিনের দ্বিতীয় সেশনে ২৪ ওভারে ১০৪ রান তুলেছে ভারত। অধিনায়ক লোকেশ রাহুলের উইকেট হারালেও গিল ও পুজারা ব‌্যাটে ভালো অবস্থানে তারা। সেঞ্চুরির পথে এগোচ্ছেন শুভমান গিল। ১২০ বলে ৮০ রানে অপরাজিত আছেন। চেতেশ্বর পুজারার ব‌্যাট থেকে এসেছে ৩৩ রান। ১ উইকেটে ভারতের সংগ্রহ ১৪০ রান। লিড ৩৯৪ রানের।

পুজারা-গিলের জুটিতে লিড বড় করছে ভারত

দ্বিতীয় উইকেটে পঞ্চাশ রানের জুটি গড়েছেন চেতেশ্বর পুজারা ও শুভমান গিল। রাহুল আউট হওয়ার পর তারা দলের হাল ধরেছিলেন। তাদের জুটিতে বড় হচ্ছে ভারতের লিড। ১ উইকেট হারিয়ে ভারতের রান ১২৪। লিড ৩৭৮ রানের। পুজারা ২২ ও গিল ৭৫ রানের ব‌্যাটিং করছেন।  তাদের জুটিতে এখন পর্যন্ত এসেছে ৫২ রান।

রাহুলকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙলেন খালেদ

ক্রিজ কামড়ে ধরে এগোচ্ছিলেন লোকেশ রাহুল। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের সঙ্গে ছিলেন শুভমান গিল। ২৫৪ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে নামা ভারতকে তিনশর বেশি ব্যবধানে এগিয়ে নিয়েছেন। অবশেষে ভেঙেছে এই জুটি।

খালেদ আহমেদের শর্ট বলে ফাইন লেগে তাইজুল ইসলামের ক্যাচ হয়েছেন রাহুল। ৬২ বলে তিন চারে ২৩ রান করেন তিনি। উদ্বোধনী জুটিতে ভারতের আসে ৭০ রান, তাদের লিড ৩২৪ রানের।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের লিড তিনশ ছাড়ালো

সকাল সকাল বাংলাদেশের দুটি উইকেট তুলে নিয়ে ভারত লিড নেয় ২৫৪ রানের। দ্বিতীয় ইনিংসে খেলতে নেমে প্রথম সেশনে সেটা ২৯০-তে নেয়। লাঞ্চের পর ব্যবধান আরও বাড়লো। কোনও উইকেট না হারিয়ে ভারতের সংগ্রহ ৬০ রান, লিড ৩১৪ রানের। ক্রিজে আছেন লোকেশ রাহুল ও শুভমান গিল।

প্রথম সেশন শেষে প্রায় ৩০০ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ

ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসের তৃতীয় ওভারে ইবাদত হোসেন মাঠ ছাড়লেন। পিঠে চোট পেয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। প্রান্ত অদলবদল করে বল করছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও পেসার খালেদ আহমেদ। তাদের দুজনের বোলিং ভারতীয় ওপেনারদের মোটেও বিব্রত করতে পারছে না।

অবশ্য চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে শুভমান গিলের বিরুদ্ধে এলবিডব্লিউর আবেদন করে সফল হয়েছিল বাংলাদেশ। আম্পায়ার আউট দেন, কিন্তু ভারতীয় ব্যাটসম্যান রিভিউ নিয়ে সিদ্ধান্ত পাল্টান।

লিড বড় করার পথে গিল ও লোকেশ রাহুল দারুণ সাবলীল। লাঞ্চে যাওয়ার আগে ১৫ ওভারে বিনা উইকেটে ভারতের সংগ্রহ ৩৬ রান।

প্রথম ইনিংসে ভারতের ৪০৪ রানের জবাবে বাংলাদেশ ১৫০ রানে অলআউট হয়। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯০ রানের লিড নিয়ে তৃতীয় দিনের প্রথম সেশন শেষ করেছে সফরকারীরা।

১৫০ রানে অলআউট বাংলাদেশ, ফলো অনে পাঠায়নি ভারত

মেহেদী হাসান মিরাজের ব্যাটে প্রতিরোধ বাংলাদেশকে আশা জাগিয়েছিল। কিন্তু তাকে ফিরিয়েই চট্টগ্রামে স্বাগতিকদের গুটিয়ে দিলো ভারত। অক্ষর প্যাটেলের বলে রিশাভ পান্তকে ক্যাচ দেন তিনি। ৮২ বল খেলে ২ চার ও ১ ছয়ে ২৫ রান করেন তিনি, যা বাংলাদেশের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। এর আগে তার সঙ্গে অপরাজিত খেলতে নেমে ইবাদত হোসেন ইনিংস সেরা ৪২ রানের জুটি গড়েন। তাকে ফিরিয়ে দিনের প্রথম ও নিজের পঞ্চম উইকেট নেন কুলদীপ যাদব।

বাংলাদেশ ভারতের ৪০৪ রানের জবাবে ১৫০ রানে অলআউট হলেও ফলো অনে যেতে হয়নি। সফরকারী অধিনায়ক লোকেশ রাহুল ২৫৪ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন।

ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট নেন রিস্ট স্পিনার কুলদীপ, ১৬ ওভারে ৬ মেডেনে ৪০ রান দেন তিনি। এছাড়া মোহাম্মদ সিরাজ পান ৩ উইকেট।

দলকে আরও বিপদে ফেলে প্যাভিলিয়নে ইবাদত

৮ উইকেটে ১৩৩ রানে তৃৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেছিল বাংলাদেশ, ক্রিজে ছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও ইবাদত হোসেন। ফলো অন এড়াতে ৭২ রান করতে হতো স্বাগতিকদের। কিন্তু ইবাদত বেশিক্ষণ টিকতে পারলেন না। ৪২ রানের জুটি ভেঙে গেলো তার বিদায়ে। ১৭ রানে কুলদীপ যাদবের পঞ্চম শিকার হন তিনি। ক্রিজে নেমেছেন খালেদ আহমেদ। বাংলাদেশের দলীয় ১৪৪ রানে ৯ উইকেট তুলে নিলো ভারত।

ফলো অন এড়াতে মাঠে বাংলাদেশ

ভারতের ৪০৪ রানের জবাবে প্রথম ইনিংস খেলতে নেমে বিপদে বাংলাদেশ। ১০২ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ফলো অনের শঙ্কায় পড়ে তারা। তবে মেহেদী হাসান মিরাজ ও ইবাদত হোসেন প্রতিরোধ গড়ে তা এড়ানোর চেষ্টা করছেন।

৮ উইকেটে ১৩৩ রানে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেছে বাংলাদেশ। ফলো অনে না পড়তে ২ উইকেট হাতে রেখে আরও ৭২ রান করতে হবে তাদের।