কাপ্তাই হ্রদে নিখোঁজের ৪০ ঘন্টাপর দুই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

কাপ্তাই হ্রদে নিখোঁজের ৪০ ঘন্টাপর দুই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাঙামাটি প্রতিনিধি: রাঙামাটির লংগদুতে শুক্রবার বিকেলে বালুভর্তি বোট ও স্পিডবোট এর মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে যাওয়া দুই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। দূর্ঘটনার অন্তত ৪০ ঘন্টা পর কলেজ শিক্ষার্থী রিটন ও এলিনা চাকমার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের এডি আবু জাফর।

নিখোঁজের ৩৬ ঘন্টা পর শনিবার দিবাগত রাত তিনটার সময় এবং রোববার ভোর ৬টার সময় এলিনা চাকমাকে স্থানীয় জেলেদের মাধ্যমে খবর পেয়ে উদ্ধার করা হয়। নিহতরা উভয়েই শিজক কলেজের উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এইচএসসি’র শিক্ষার্থী বলে জানাগেছে।

এদিকে নিহতের মরদেহ উদ্ধারের পর লংগদু থানার এসআই মশিউর রহমান ও এসআই শাহাবুর আলম শিহাবের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম মরদেহগুলো উদ্ধার করে লংগদু থানায় নিয়ে যায়।

লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুল বলেন, আমাদের পুলিশ ফায়ার সার্ভিসের সাথে উদ্ধার অভিযানে প্রথম দিন থেকে ঘটনাস্থলে ছিলো।

গত ৪ নভেম্বর শুক্রবার দুপুর ৩টার দিকে বাঘাইছড়ি থেকে ছেড়ে আসা স্পিডবোট ও রাঙামাটি থেকে ছেড়ে আসা বালুভর্তি বোটের সাথে ধাক্কা লেগে স্পিডবোটটি দুমড়েমুচড়ে যায়। এসময় স্পিডবোটটিতে থাকা ৯জন যাত্রীর সকলেই কাপ্তাই হ্রদে পানিতে পড়ে যায়। স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ৭জনকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করতে পারলেও রিটন ও এলিনা নামের দুই শিক্ষার্থী হ্রদের পানির নীচে তলিয়ে যায়। স্পিডবোট চালকের খামখেয়ালীতেই এই দূর্ঘটনা ঘটেছে এবং স্পিডবোট থাকা যাত্রীদের কারো গায়েই জীবন রক্ষাকারী জ্যাকেট পরিধান ছিলোনা বলেও জানিয়েছে স্থানীয়রা।