কাপ্তাইয়ে বিনোদন কেন্দ্রে উপচে পড়া ভীড়

: অপরুপ সৌন্দয্যের লীলাভুমি রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলা।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কাপ্তাই প্রতিনিধি: অপরুপ সৌন্দয্যের লীলাভুমি রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলা। কাপ্তাইয়ের প্রতিটি স্থানেই রয়েছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি। সবুজ পাহাড়, লেক, কর্ণফুলী নদী সহ আঁকা-বাকা পাহাড়ি পথ যে কোন মানুষের মনকে আকর্ষণ করে সহজেই। সেই প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে টানা ৩ দিনের ছুটিতে কাপ্তাইয়ে শত শত পর্যটকের আগমন ঘটেছে। পর্যটকের আনোগোনায় মুখরিত কাপ্তাইয়ের সব বিনোদন কেন্দ্র।

কাপ্তাইয়ের বালুরচর এলাকায় কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের গাঁ ঘেষে অবস্থিত আকর্ষণীয় পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র ‘প্রশান্তি পার্ক’। গত শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) বেলা ২ টায় গিয়ে দেখা যায়, এই কেন্দ্রে শত শত পর্যটকের আগমন ঘটেছে। এই কেন্দ্রে ঘুরতে আসা চট্রগ্রাম পাথরঘাটা এলাকা শিউলি চৌধুরী,হৃদয় দাশ এই প্রতিবেদককে জানান, তাঁরা একসাথে ২০ জন  বেড়াতে এসেছেন। কাপ্তাইয়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে তাঁরা মুগ্ধ। এই কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক শাওন জানান, তিল ধরনের ঠাঁই নেই এই কেন্দ্রে ।

রবিবার (২৫ ডিসেম্বর) বেলা ১২ টায় কাপ্তাই শিলছড়ি হাজিরটেক নির্সগ রিভার ভ্যালিতে গিয়ে দেখা যায়, এইখানে ৯ টি পট হাউসের কোন টি খালি নেই। এই কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মাসুদ তালুকদার জানান,নান্দনিক কারুকার্যে কর্ণফুলির কোল ঘেঁষে তৈরী ৯ টি পট হাউস গত এক সপ্তাহ ধরে বুকিং। এইখানে কায়াকিং করার পাশাপাশি আমাদের রেস্টুরেন্টে সুলভ মূল্যে নানা উপাদেয় খাবার পাওয়া যাচ্ছে।

ওয়াগ্গা বিজিবি পরিচালিত রিভার ভিউ পার্ক এন্ড পিকনিক স্পট গিয়ে দেখা যায়, এইখানেও শত শত পর্যটকের আনাগোনায় মুখরিত। অনেকে পরিবার পরিজন নিয়ে এসেছেন বেড়াতে। তাদের একজন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের মাস্টার্স এর শিক্ষার্থী স্বর্নালী। তিনি জানান,আমাদের ১০ জনের টিম এইখানে বেড়াতে এসেছি। কর্ণফুলি নদীর ধারে অবস্থিত এই বিনোদন কেন্দ্রটি খুবই সুন্দর। এই বিনোদন পার্কে বেড়াতে আসা চট্রগ্রামের বহদ্দার হাট হতে কাউসার দম্পতি এই প্রতিবেদককে জানান, প্রকৃতির অপরুপ সৌন্দর্য মন্ডিত কর্নফুলি নদীর পাশে অবস্হিত এই বিনোদন স্পটে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা পাওয়া গেছে। যা তাদের ভ্রমনকে আনন্দদায়ক করেছে।

এদিকে কাপ্তাইয়ের অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র কাপ্তাই নৌ বাহিনী ঘাঁটি শহীদ মোয়াজ্জেম কর্তৃপক্ষ পরিচালিত লেক প্যারাডাইস ও সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত জীবতলী লেকশোর পিকনিক স্পট গিয়ে দেখা যায় এইখানে শত শত পর্যটক। কোথাও তিল ধরনের ঠাঁই নেই।

লেকশোতে বেড়াতে আসা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মেরিন সাইন্স বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডঃ নুরুল আজিম সিকদার,  সীতাকুণ্ড মাহমুদাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুল আজাদ এবং রাঙ্গুনিয়া স্কুলের ৯২ ব্যাচের শিক্ষার্থী ওসমান গণি সোহেল, বেলাল হোসেন জানান, আমরা রাঙ্গুনিয়া হাই স্কুলের ৯২ এসএসসি ব্যাচের বন্ধু এবং পরিবার নিয়ে  রবিবার (২৫ ডিসেম্বর) লেকশোতে এসেছি। এটি যেন একটি স্বর্গ, এই কেন্দ্র হতে একসাথে কাপ্তাই লেক এবং পাহাড়ের অপরুপ সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়।

কাপ্তাই উপজেলা বেসরকারি পর্যটন কেন্দ্র শিলছড়ি বনশ্রী পিকনিক কেন্দ্রের পরিচালক প্রকৌশলী রুবাইয়েত আক্তার চৌধুরী জানান,পর্যটন শহর কাপ্তাইয়ে প্রতিদিন ভ্রমন পিপাসুদের আগমন ঘটছে। বিশেষ করে সাপ্তাহিক ছুটির দিনে কোন রিসোর্ট খালি থাকে না।

কাপ্তাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( ওসি) মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, কাপ্তাইয়ের অনেকগুলো বিনোদন কেন্দ্র আছে। প্রতিটি কেন্দ্রে প্রচুর পর্যটক আসে। তাই থানা পুলিশ এর পক্ষ হতে সবসময় পর্যটকদর নিরাপত্তা বিধান রাখার জন্য আমাদের পুলিশ সদস্যরা টহল আরোও জোরদার করেছেন।