এমনও দিন গেছে আমি উপোস থেকেছি: মিঠুন

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: গায়ের রঙ নিয়ে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে মিঠুন চক্রবর্তীকে। এমনকি রাতে এ নিয়ে চোখের পানিও ফেলতেন তিনি।

সম্প্রতি তিনি সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পসের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এসব স্মৃতিচারণ করেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

ডিস্কো কিং স্পেশাল এপিসোডে তিনি এসেছিলেন; সঙ্গে ছিলেন পদ্মিনী কোলাপুরে।

মিঠুন বলেন, আমি কখনো চাই না কেউ সে রকম সময়ের মধ্য দিয়ে যাক, যে রকমটা আমাকে যেতে হয়েছে। অনেকেই নানা ধরনের স্ট্রাগলের মুখে পড়ে, তবে আমাকে তো সবসময় আমার গায়ের রঙ নিয়ে কটাক্ষ করা হতো।

অনেক বছর এই অপমান আমাকে সহ্য করতে হয়েছে। এমনও দিন গেছে, যখন আমি খালি পেটে শুতে গেছি। কাঁদতে কাঁদতে ঘুমিয়ে পড়তাম। এ রকমও দিন গেছে, যখন আমাকে ভাবতে হয়েছে পরের বেলা আমি আদৌ খাবার পাব তো? একাধিক দিন তো ফুটপাতে ঘুমিয়েছি।

মিঠুন বলেন, এ কারণেই আমি কখনো চাই না যে, আমাকে নিয়ে বায়োপিক বানানো হোক। কারণ আমার জীবনে যা ঘটেছে, সেটি যাতে আর কাউকে ভোগ করতে না হয়। এটি অনেকের মন ভেঙে দেবে।

আমার গল্প কখনই কাউকে অনুপ্রেরণা জোগাবে না। বরং লোককে নিজেদের স্বপ্ন পূরণের পথে এগোতে ভয় পাবে।

আমি হিট ছবি দিয়েছি বলে লিজেন্ড নই, বরং নিজেকে লিজেন্ড ভাবি। কারণ অতিক্রান্ত করেছি আমি সব কষ্ট আর জীবনসংগ্রাম।’

১৯৭৬ সালে মৃগয়া দিয়ে বলি ডেবিউ করেন মিঠুন, আর প্রথম ছবির জন্যই পান জাতীয় পুরস্কার। আশি আর নব্বইয়ের দশকের মধ্যে একাধিক হিট দিয়েছেন- যেমন ডিস্কো ডান্সার, ওয়ার্ডাট, বক্সার, অগ্নিপথ। এ বছরেই তাকে শেষ দেখা গেছে ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ছবিতে।