৯৯৯ এ কল দিয়ে সেবা না পাওয়ার অভিযোগ বৃদ্ধ দম্পতির

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৭৩ বছরের বৃদ্ধ মো. ফেলান মণ্ডল ও স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৫৫) বেধড়ক মারপিটের শিকার হয়েছেন বলে জানা গেছে। সেই সঙ্গে মারপিটের পর তাদের হাসপাতালে যেতে না দিয়ে প্রায় ৫ ঘণ্টা আটকে রাখা হয় এবং এ সময় পুলিশের সাহায্য পেতে ৯৯৯ এ কল দিয়েও কোনো সাহায্য পাননি বলে অভিযোগ বৃদ্ধ দম্পতির।

ভুক্তভোগীরা উপজেলার ৮ নম্বর মাহমুদপুর ইউনিয়নের আমবাগান (চকনওদা) গ্রামের বাসিন্দা। গতকাল রোববার এ নিজের বাড়িতে নির্যাতনের শিকার হন তাঁরা। প্রায় ৫ ঘণ্টা আটকে রাখার পর আত্মীয়ের সহযোগিতায় উদ্ধার হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পান বলে জানান তারা।

আজ সোমবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভুক্তভোগী মো. ফেলান মণ্ডল বলেন, ‘একই গ্রামের বাসিন্দা তাঁর শ্যালক আঃ বারেক (৫০), তাঁর স্ত্রী রুপসানা (৪০) ও তাঁর ছেলে ফরহাদ (১৮) তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে আমাকে ও আমার স্ত্রীর ওপর চড়াও হয় এবং কিল ঘুষি মারতে থাকে। একপর্যায়ে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা চিপে ধরে তাঁরা। পরে আমাদের সেখান থেকে চিকিৎসার জন্য কোথাও যেন না যেতে পারি, সে জন্য আটকে রাখে।’

ফেলান মণ্ডল বলেন, ‘এ সময় নিজেদের উদ্ধারের জন্য ৯৯৯ কল করি। প্রায় ১ ঘণ্টা পার হলেও পুলিশ–আসছি বলেও আর আসেনি।’ পরে নিজ আত্মীয় ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাঁদের উদ্ধার করে নবাবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন বলে জানান তিনি।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মো. রুবেল হোসেন বলেন, ওই বৃদ্ধের গলায় ও গালে আঘাতের কারণে ফুলে গেছে। বয়স বেশি হওয়ায় সুস্থ হতে কিছুটা সময় লাগবে।’

এ বিষয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, ‘৯৯৯ কলের বিষয়ে থানায় খোঁজ নেওয়া হবে। কেন সেখানে পুলিশ যায়নি, সে বিষয়েও খোঁজ খবর নিচ্ছি। কারও অবহেলা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’