সেই তেলবাহী ব্রিটিশ ট্যাঙ্কার ছেড়ে দিল ইরান

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

ব্রিটিশ পতাকাবাহী ট্যাঙ্কার স্টেনা ইম্পেরো ছেড়ে দিয়েছে ইরান।

আটকের পর ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বলা হয়েছিল, ইসলামিক রেভ্যুলিউশনারি গার্ড কর্পসের (আইআরজিসি) নৌরক্ষীরা পারস্য উপসাগর থেকে একটি বিদেশি তেলের ট্যাঙ্কার জব্দ করেছে, যেটি তেল চোরাচালান করছিল। এ ঘটনায় জাহাজের ৭ নাবিককে আটক করা হয়েছে। ট্যাঙ্কারটিতে ৭ লাখ লিটার তেল ছিল।

শুক্রবার সকালে স্টেনা ইম্পেরোকে ইরানের বন্দর আব্বাসের বাইরে অবস্থান করতে দেখা গেছে বলে সাটেলাইট ডাটার বরাত দিয়ে জানিয়েছে ম্যারিন ট্রাফিক ডট কম।

জাহাজের গতিপথ শনাক্তকারী একটি প্রতিষ্ঠানের বরাতে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান জানিয়েছে, আজ (শুক্রবার) ইরানের বন্দর আব্বাস থেকে যাত্রা শুরু করেছে স্টেনা ইম্পেরো।

জাহাজের গতিপথ শনাক্তকারী ওই প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, ইরানের বন্দর আব্বাস থেকে সংযুক্ত আর আমিরাতের রশিদ বন্দরের অভিমুখে যাত্রা করেছে স্টেনা ইম্পেরো। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দুবাইয়ের রশিদ বন্দর থেকে জাহাজটি এখন ২৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। আজই জাহাজটি বন্দরে পৌঁছাবে বলে জানিয়েছে জাহাজের গতিপথ শনাক্তকারী প্রতিষ্ঠানটি।

ট্যাঙ্কারটি ছেড়ে দেয়ার বিষয়ে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি ইরানের কর্তৃপক্ষ। তবে রুহানি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে যোগ দেয়ার আগে ব্রিটিশ ট্যাঙ্কার ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন বলে কিছু গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ হয়।

প্রসঙ্গত দুই মাসের বেশি ইরানের কাছে আটক ওই ব্রিটিশ ট্যাঙ্কারটির মালিক স্টেনা বাল্ক অব সুইডেন। তবে সেটি যুক্তরাজ্যের তেলবহন করার কাজে ব্যবহৃত হয় এটি। গত ১৯ জুলাই তেল পাচারের অভিযোগে পারস্য উপসাগরে তেলবাহী ট্যাঙ্কারটি আটক করে ইরানের বিপ্লবী বাহিনী।

গত মাসে জিব্রাল্টার কর্তৃপক্ষ ইরানের একটি জাহাজটি ছেড়ে দেয়ার পর ইরানও ব্রিটিশ ট্যাঙ্কারটি ছেড়ে দিয়েছে বলে মত দিচ্ছেন আর্ন্তজাতিক বিশ্লেষকরা।