সীতাকুণ্ডে গৃহবধূকে ধর্ষণকারীর মূলহোতাসহ আটক ২

সীতাকুণ্ডে গৃহবধূকে ধর্ষণকারীর ঘটনায় আটক মূল আসামী সাদ্দাম হোসেন ও তার সহযোগী মোঃ জাহেদ
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কামরুল ইসলাম দুলু, সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি: সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড এলাকায় এক গৃহবধূকে নিজ ঘরে ও অপর দুই স্থানে নিয়ে কয়েক ঘণ্টা ধরে দলবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় মূল আসামীসহ দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

আটককৃত দুইজন মূল আসামী সাদ্দাম হোসেন ও তার সহযোগী মোঃ জাহেদ। গতকাল শুক্রবার (২৯ জুলাই) উপজেলার বাড়বকুন্ড মিজিপাড়া এলাকা থেকে দুইজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

বিষয়টি শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে জানান র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল এম এ ইউসুফ।

তিনি বলেন, বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের হাশেমনগরের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন ওই গৃহবধূ। গত ২৩/২৪ দিন আগে তার স্বামী পুলিশ কর্তৃক আটক হয়ে জেল হাজতে যায। এই কারনে গৃহবধূ দুই সন্তানদের নিয়ে তার বাবার বাড়ী উপজেলার মুরাদপুরে চলে যায়। গত ২৮ জুলাই আনুমানিক সন্ধ্যা ৭টার সময় গৃহবধূ জানতে পারেন যে, কতিপয় দুস্কৃতিকারীরা তার বাসায় ঢুকে মালামাল বের করে নিয়ে যাচ্ছে। এ সংবাদ পেয়ে এসে দেখেন ঘরের দরজা খোলা এবং মালামাল এলোমেলো অবস্থায় আছে। এসময় আসামীরা তার বাসা থেকে আনুমানিক দেড় লক্ষ টাকার বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়। ছিনিয়ে নেয়া মালামাল আনার জন্য ওই গৃহবধূ তার ভাগিনা ও ফুফাতো ভাই এর ছেলেসহ ২৮ জুলাই দিবাগত রাত অনুমান সোয়া ১২ টার সময় বাড়বকুন্ড ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন রাস্তার উপর পৌছালে দুস্কৃতিকারীরা গৃহবধূ তার ভাগিনা ও ফুফাতো ভাই এর ছেলেকে মারধর করে নিয়ে যায় বাড়বকুন্ড ইউনিয়নস্থ মকবুল রহমান জুট মিল সংলগ্ন রেল লাইনের একটি ঝুপড়ি ঘরে। সেখানে গৃহবধূকে আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় দুস্কৃতিকারীরা গৃহবধূকে ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে। খবর পেয়ে গৃহবধূ বড়ভাই তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় শুক্রবার ওই নারী সীতাকুণ্ড থানায় পাঁচ যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

লেঃ কর্ণেল এম এ ইউসুফ বলেন, আটক মুল আসামী সাদ্দামের বিরুদ্ধে ৬টি মামলা রয়েছে। আটক দুইজনকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীরা ঘটনার কথা স্বীকার করে। তাদেরকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।