সীতাকুণ্ডে এবার পুলিশ বহনকারী গাড়ি থেকে হাইওয়ে পুলিশের ঘুষ দাবী

প্রতিকী ছবি।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি: সীতাকুণ্ডের বার আউলিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় গাড়ি থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ রয়েছে। এবার খোদ পুলিশ পরিবহণকারী গাড়ি থেকে চাঁদা দাবীর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি ভাটিয়ারীতে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে আসাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন স্থানে দায়িত্ব পালন করছে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীতে পুলিশের ডিউটি করতে গিয়ে বারআউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের ঘুষের শিকারে পড়েছে মোহাম্মদ ফারুক নামে এক সিএনজি অটোরিক্সা চালক।

শনিবার রাত ৯টায় ডিউটিরত অবস্থায় এই ঘটনা ঘটে। এসময় ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির কয়েকজন পুলিশকে নিয়ে সিএনজি চালক ডিউটি করছিলো।

ফারুক বলেন, হাটহাজারী-ভাটিয়ারী লিংক রোড়ে সিএনজি অটোরিক্সাটি চলাচল করতো। শনিবার সকালে ফৌজদারহাট পুলিশের একটি টিম সিএনজিটি ডিউটি করার জন্য নেন। রাত ৯টার সময় ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মাসুম ভাটিয়ারী রিভার ভিউ হোটেলের সামনে ডিউটি করছিলো। গাড়িটি রাস্তার পাশে রেখে এসআই মাসুম দুইজন পুলিশ অফিসারকে ওই হোটেলে গেলে এ সময় বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের এএসআই গাজী মোহাম্মদ শওকত আকবর মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল অবৈধ তাই দুই হাজার টাকা দিতে বলেন সিএনজি চালকে। না দিলে সিএনজি অটোরিক্সাটি জব্দ করে হাইওয়ে থানাতে নিয়ে যাওয়া হবে বলে হুমকি দেন। গাড়ির চাবি কেড়ে নেন।

ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মাসুম বলেন, হাইওয়ে পুলিশের এএসআই সিএনজি চালক থেকে দুই হাজার টাকা চেয়েছিলো। পুলিশের ডিউটি করছে বলে জানতে পেরে সিএনজিটি ছেড়ে দেন।

ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মাসুম সিএনজিটি পুলিশের ডিউটি করছে বলে জানালে হাইওয়ে পুলিশ সিএনজিটি ছেড়ে দেন।

বিষয়টি ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়িকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন বলে জানান সিএনজি চালক ফারুক। তিনি বলেন, আমি মহাসড়কে গাড়ি চালাইনা। ভাটিয়ারী-হাটহাজারী রোডে চালাই। কিছুদিন আগেও ওই এসআই আমার কাছে ৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করলে আমি দিতে অপারগতা প্রকাশ করি।