সিআরবিতে সাংস্কৃতিক উৎসব

ছবি: সংগৃহীত।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের ‘ফুসফুস’ হিসেবে পরিচিতি পাওয়া সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ থেকে সরে আসছে সরকার। শহরের মধ্যে সবুজের আধার সিআরবি শেষ পর্যন্ত রক্ষা পাওয়ায় সাংস্কৃতিক উৎসবের আয়োজন করেছে নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রাম। আজ শুক্রবার বিকাল ৩টা থেকে সিআরবি এলাকায় এই সাংস্কৃতিক উৎসব অনুষ্ঠিত। এতে গান, ছড়া ও কবিতায় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানাবেন চট্টগ্রামের সর্বস্তরের মানুষ।

নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের নেতারা জানান- প্রকৃতির অপার দান সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ প্রকল্প নেওয়ার প্রতিবাদে অহিংস আন্দোলনে নামেন নানা শ্রেণি ও পেশার মানুষ। সিআরবি থেকে হাসপাতাল প্রকল্প সরাতে রেলমন্ত্রীকে চিঠি দেন চট্টগ্রামের সব মন্ত্রী ও এমপিরা। এরপর সিআরবি থেকে সীতাকুণ্ডের কুমিরায় হাসপাতাল নির্মাণ প্রকল্প সরাতে উদ্যোগ নেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীও এ বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন।

শেষ পর্যন্ত সিআরবি রক্ষা পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানাতে চট্টগ্রামে দুই দিনের কর্মসূচি নিয়েছে নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রাম। এরমধ্যে শুক্রবার সাংস্কৃতিক উৎসব এবং শনিবার মহাসমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। শুক্রবারের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের সব সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিল্পীরা অংশ নেবেন। গান, ছড়া, কবিতায় উৎসব পালন করবেন। অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে চলবে বিশিষ্টজনদের বক্তৃতা পর্বও।

নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের সদস্য সচিব এডভোকেট মো. ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল গণমাধ্যমকে জানান- দল, মত নির্বিশেষে চট্টগ্রামের সব নাগরিক এক কাতারে দাঁড়িয়ে সিআরবি রক্ষায় আন্দোলন করেছেন। শেষ পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন সফল হয়েছে। সিআরবি থেকে হাসপাতাল প্রকল্প সরিয়ে নিচ্ছে সরকার। এ জন্য গান, কবিতা, ছড়ায় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানাবেন চট্টগ্রামের সর্বস্তরের মানুষ।

তিনি বলেন, আগামীকাল শনিবার চট্টগ্রামের ফুসফুস সিআরবি রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানাতে সমাবেশ করবে নাগরিক সমাজ। দুপুর দুইটা থেকে শুরু এই মহাসমাবেশ প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বিশেষ অতিথি থাকবেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী এবং শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।