সামরিক বাহিনীতে যোগ দিতে পারবেন সৌদি নারীরা

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের পর সৌদি রাজতন্ত্রের পরবর্তী উত্তরাধিকারী বিবেচনা করা হয় ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানকে। বর্তমানে রাজপরিবারে বর্তমানে সবচেয়ে ক্ষমতাশীল ব্যক্তি তিনি। দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তিনিই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন।

এরই মধ্যে তিনি সৌদি আরবকে আধুনিক রাষ্ট্রে পরিণত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি। রক্ষণশীল সৌদি আরবে সামাজিক অনেক বিধিনিষেধ শিথিল করার মধ্য দিয়ে তিনি প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

সৌদি ভিশন-২০৩০ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে নারীদের অধিক অধিকার নিশ্চিত করেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবার সৌদি নারীদের সামরিক বাহিনীতে যোগ দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হলো। নারীদের সামরিক বাহিনীতে যোগ দেওয়ার অনুমতি দিলো দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

সৌদি মালিকানাধীন পত্রিকা আশ-শারকুল আওসাত গত বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সৌদি নারীরা এখন থেকে দেশের সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন শাখায় সিপাহী থেকে শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করতে পারবেন।

গত বছর সৌদি সরকার প্রথমবারের মতো দেশটির নারীদের নিরাপত্তা বাহিনীর মাদকবিরোধী দপ্তর, অপরাধ তদন্ত এবং কারা ব্যবস্থাপনার মতো জন-নিরাপত্তা শাখায় কাজের সুযোগ দিয়েছে। এর আগে নারীদের ওপর থেকে গাড়ি ও বিমান চালানোর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া, মাঠে বসে নারীদের খেলাধূলা উপভোগ করাসহ কর্মক্ষেত্রে নারীদের অগ্রগামী করানোয় খুব অল্প সময়ে তরুণদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।

এক বছর আগে যেখানে সৌদি আরবে পুরুষ সঙ্গী ছাড়া নারীদের ভ্রমণ নিষিদ্ধ ছিল।এমনকি গাড়ি চালানোর অনুমতি ছিল না সেই দেশে। এখন সেসব সুযোগের পাশাপাশি সৌদি নারীদের সামরিক শাখায় কাজের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।