সাবেক তিন সিইসিকে নিয়ে বৈঠকে ইসি

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: সাবেক তিন প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ (সিইসি) ১৪ জনকে নিয়ে বৈঠকে বসেছে বর্তমান কমিশন। পরামর্শ ও অভিজ্ঞতা আদান-প্রদানের লক্ষ্যে বুধবার বেলা ১১টায় আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে এ বৈঠক শুরু হয়। সাবেক সিইসি আব্দুর রউফ, কে এম নূরুল হুদা, কাজী রকিব উদ্দীন আহমদ এবং সাবেক নির্বাচন কমিশনার এম সাখাওয়াত হোসেন, রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম, মো. শাহনেওয়াজ, সাবেক ইসি সচিব মোহাম্মাদ সাদিক, মোহাম্মাদ আবদুল্লাহ, সিরাজুল ইসলাম, হেলাল উদ্দীন আহমেদ, এমএন রেজা, ইসির সাবেক অতিরিক্ত সচিব জেসমিন টুলী ও মোখলেছুর রহমান বৈঠকে রয়েছেন। বৈঠকে ২৮ জনকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগে গত ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা-৫ আসনের (ফুলছড়ি-সাঘাটা) উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ভোটের পরিস্থিতি নিয়ে সিইসি সাংবাদিকদের জানান, উপনির্বাচন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। আইন ভঙ্গ করে গোপন কক্ষে প্রবেশ করে ভোট দিয়ে দিতে আমরা স্বচক্ষে দেখেছি।

এই উপনির্বাচনে ভোট বন্ধের ঘটনা তদন্তে শুনানির কার্যক্রম শুরু করেছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) তদন্ত কমিটি। ইসির অতিরিক্ত সচিব ও গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান অশোক কুমার দেবনাথের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি আজ বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভা কক্ষে শুনানির কাজ শুরু করেছে।

আজ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভাকক্ষে ৪০ জন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, ২৭৮ জন সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, ২০০ জন পোলিং এজেন্ট (প্রত্যেক প্রার্থীর পক্ষে), সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা, সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মতিউর রহমানসহ ৫২২ জনের শুনানি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার ২০ অক্টোবর গাইবান্ধা সার্কিট হাউজে পাঁচ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী, ১৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, বিজিবি ও র‌্যাবের কমান্ডিং অফিসার দুইজন, রিটার্নিং অফিসার সাইফুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম এবং জেলা প্রশাসক মো. অলিউর রহমানসহ ২৭ জনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। শুনানির প্রথম দুই দিন স্থানীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং মিডিয়া ব্যক্তিরাও উপস্থিত থাকবেন বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে ইসি।