সাফ জয়ী পাঁচ নারী ফুটবলারকে চট্টগ্রামে সংর্বধনা

সংবর্ধনা পাওয়া বৃহত্তর চট্টগ্রামের পাঁচ ফুটবলার হলেন– রাঙামাটির রুপনা চাকমা ও ঋতুপর্ণা চাকমা; খাগড়াছড়ি জেলার মনিকা চাকমা এবং যমজ দুই বোন আনাই মগিনী ও আনুচিং মগিনী
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: দক্ষিণ এশিয়া নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ (সাফ) জয়ী বৃহত্তর চট্টগ্রামের পাঁচ নারী ফুটবলারকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম নগরীর জামালখান মোড়ে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

চট্টগ্রাম থেকে প্রকাশিত দৈনিক আজাদী পত্রিকার পক্ষ থেকে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পাঁচ ফুটবালরাকে ১ লাখ টাকা করে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

সংবর্ধনা পাওয়া বৃহত্তর চট্টগ্রামের পাঁচ ফুটবলার হলেন– রাঙামাটির রুপনা চাকমা ও ঋতুপর্ণা চাকমা; খাগড়াছড়ি জেলার মনিকা চাকমা এবং যমজ দুই বোন আনাই মগিনী ও আনুচিং মগিনী।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ঋতুপর্ণা চাকমা বলেন, আমি বৃহত্তর চট্টগ্রামের মেয়ে। আমি গর্বিত চট্টগ্রামের মেয়ে হয়ে। যখন দূরে থাকি তখন চট্টগ্রামকে মিস করি। অনেকদিন পরে চট্টগ্রামে শহরে এসে অনেক ভালো লাগছে। অনেক খুশি লাগছে আজকে। আমাদের সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

উপস্থিত ভক্তদের উদ্দেশে ঋতুপর্ণা চাকমা বলেন, এতোদিন যেভাবে আমাদের পাশে ছিলেন, ভবিষ্যতেও এভাবে পাশে থাকবেন বলে প্রত্যাশা করি। আমারা যেন বাংলাদেশকে আরও ভালো সাফল্য এনে দিতে পারি সেই দোয়া করবেন। আপনাদের সীমাহান সমর্থন আমাদের পথচলা আরো দৃঢ় করবে।

এরআগে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মোটর শোভাযাত্রার মাধ্যমে চট্টগ্রাম ক্লাব থেকে অনুষ্ঠানস্থলে নিয়ে আসা হবে সাফজয়ী পাঁচ ফুটবলারকে। এ সময় রাস্তার দুই পাশের মানুষজন তাদের দেখতে ভীড় করেন, হাত উঁচিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

পরে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতে পাঁচ ফুটবলারকে ফুলের মালা এবং উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়েছে আয়োজকদের পক্ষ থেকে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন, পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়, সাবেক মেয়র ও সিজেকেএস সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের ন্যাশনাল টিম কমিটি এবং উইম্যান উইংসের সদস্য, বিসিবি পরিচালক মনজুর আলম মঞ্জু।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নারী ফুটবলারদের নিয়ে আগত অতিথিরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন।

এরআগে বুধবার বেলা ১১টার দিকে পাঁচ ফুটবলার ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম আসেন। চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে তাদের অভ্যর্থনা জানানো হয়।