সাতকানিয়া গণধ*র্ষ*ণে*র মূলহোতা মোক্তার গ্রেফতার

মো:মোক্তার আহমদ (৪৫)।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সাতকানিয়া প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার এওচিয়ার চূড়ামনির পাহাড়ের পাদদেশের গণধর্ষণ মামলার এজাহারনামীয় ১নং আসামিকে র‌্যাব-৭ ও পুলিশের যৌথ অভিযানে গ্রেফতার করা হয়।

সোমবার (৭ নভেম্বর ) দিবাগত রাতে সাতকানিয়া উপজেলার কেরানীহাটস্থ এলাকা থেকে গণধর্ষণ মামলার এই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামি উপজেলার এওচিয়ার ২নং ওয়ার্ডের চূড়ামনির সিকদার পাড়ার মৃত আব্দুস সালামের পুত্র মো:মোক্তার আহমদ (৪৫)।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বিগত ২৭ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টার সময় পাশ্ববর্তী আনু বেগম ধর্ষিতাকে বাড়ির সামনের রাস্তা থেকে নিয়ে যায়। সেখান থেকে ধর্ষক মোক্তার জোর করে সিএনজি অটোরিক্সা যোগে চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। একই দিন রাত সাড়ে ১০ টার দিকে পুনরায় এলাকায় নিয়ে এসে ধর্ষিতাকে ছাবেরের পেঁপে বাগান ও বক্করের টিলায় নিয়ে মোক্তারের আরেক সহযোগী শিমুল প্রকাশ শ্যামলসহ আরও ৪/৫ জন মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে মোক্তার ও শিমুলসহ তাদের অপর সঙ্গীরা ট্যাক্সি যোগে পরদিন (২৮ অক্টোবর) ভোর আনুমানিক ৬ টার দিকে বাঁশখালীর কাতারিয়া এলাকায় ধর্ষিতার এক আত্মীয়ের বাসায় রেখে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। একই দিন সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ধর্ষিতা যুবতী বাড়িতে ফেরত আসে। পরে ধর্ষিতার কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে স্থানীয় ইউ.পি সদস্য মোজাফফর ও আজিজকে জানালেও তারা বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। পরে (২৯ অক্টোবর) থানায় মামলা দিলেও তা নথিভুক্ত হয়নি। ধর্ষিতা যুবতী অসুস্থ হয়ে পড়লে চমেক হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করানো হয়।

এ ঘটনায় ধর্ষিতা যুবতীর বড় ভাই বাদী হয়ে ২ নভেম্বর রাতে মোক্তারসহ উপজেলার কাঞ্চনা ইউনিয়নের জোট পুকুরিয়া বাজারের উত্তর পাশে দক্ষিণ কাঞ্চনা এলাকার শিমুল প্রকাশ শ্যামল (৪০) ও এওচিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড চূড়ামণি সিকদার পাড়ার আনু বেগম (৪০) কে আসামী করে থানায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অপহরণ করে জোর পূর্বক দলবদ্ধভাবে ধর্ষণ ও সহায়তা করার অপরাধে মামলা দায়ের করেন।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) মোঃ আব্দুল  হান্নান বলেন,ধর্ষণ মামলার আসামি মোক্তার আহমদকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাতকানিয়ার কেরানীহাটস্থ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞেসাবাদে ঘটনার সত্যতা শিকার করেছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ধর্ষণের সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।