সাগরিকায় সর্বাধুনিক নির্মাণ সামগ্রী পরীক্ষাগার উদ্বোধন করলেন মেয়র নাছির

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নগরীর সাগরিকাস্থ সিটি কর্পোরেশন স্টোর এলাকায় সর্বাধুনিক নির্মাণ সামগ্রী পরীক্ষণ পরীক্ষাগার স্থাপন করেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন।

রবিবার সকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ. জ. ম. নাছির উদ্দীন এই পরীক্ষাগার উদ্বোধন করেন।

এ সময় রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, চসিক প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমেদ, নবাগত প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল সোহেল আহমেদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবু ছালেহ, কামরুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, মনিরুল হুদা, সুদীপ বসাক, নির্বাহী প্রকৌশলী, সহকারী প্রকৌশলী, উপ সহকরী প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

সাগরিকা সিটি কর্পোরেশন স্টোর এরিয়ায় ২ হাজার বর্গফুট জায়গা নিয়ে এই ল্যাবটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ল্যাবের যন্ত্রপাতি আমদানীসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এ ভবন নির্মাণে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ব্যয় হয় প্রায় ২ কোটি টাকা। ল্যাবের যন্ত্রপাতি ইংল্যান্ড থেকে আমদানীকৃত।

এই ল্যাবে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমপ্রেসার মেশিন, ইমপেক্ট ক্রেস্টার, এগ্রিগেট ক্রাসিং মেশিন, এগ্রিগেট ইমপেক্ট ভ্যালু যন্ত্রাংশ, কমপেক্ট কোর ড্রিল মেশিন, লস এনজেন্স এবরেশন মেশিন, চালনী, মটার মিক্সাচার, অটোমেটিক ভাইকেট মেশিন, ফিল্ড সিবিআর মেশিন, প্রোক্টর কমপেকশন মেশিন, অটোমেটিক পেনট্রোমিটার, রিং এন্ড বল মেশিন, ইলেকট্রনিক ব্যালেন্স, কনক্রিট মেশিন, ও সেন্ড কোন ইত্যাদি মেশিন রয়েছে। এ মেশিনগুলোর মাধ্যমে সিলিন্ডার, পাথর টেস্ট ও ইটের টেস্ট, বস্তুর ওজন মাপক যন্ত্র (পানি ও বালি), আমেরিকান ও বিট্রিশ পদ্ধতিতে পাথর পরীক্ষা, পাথর ও বালির গ্রেডিং বেরকরণ, বালি, সিমেন্ট পানি দিয়ে মিক্সার করে ছোট ছোট ব্লক প্রস্তুত করণ, যা পরবর্তীতে মেশিনে টেস্ট করা হয়ে থাকে। এ ছাড়া আরো রয়েছে সিমেন্টে জমাট বাঁধার সময় নির্ধারণ, ফিল্ডে মাটির গুনাগুন পরীক্ষা, বিটুমিন, মৃত্তিকা ও ম্যাটেরিয়াল টেস্ট ও বালির গুনাগুন পরীক্ষা, বিভিন্ন রেঞ্জের পরিমাপক ।

চট্টগ্রামে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে থাকলেও এ ধরণের আধুনিক যন্ত্রপাতি সম্বলিত কোন পরীক্ষাগার এ নগরীতে নেই। এই প্রথম চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে এ ধরণের একটি আধুনিক ল্যাব স্থাপন করেছে। এর মাধ্যমে নগরীর সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের ক্ষেত্রে সুফল ভোগ করতে পারবে।

উদ্বোধনকালে সিটি মেয়র বলেন, এ ল্যাবের অভাবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্মাণ সামগ্রী বাহির থেকে পরীক্ষা করতে হতো। এতে সময় ও অর্থের অপচয় হতো। এই ল্যাব প্রতিষ্ঠার মধ্যদিয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সময় ও অর্থ রোধ হবে। এছাড়া নির্মাণ সামগ্রী নিয়ে নগরবাসীর মধ্যে অনেক মুখরোচক কথা বলা হতো। এই ল্যাব হওয়ায় নগরবাসীর মধ্যে সেই বিভ্রান্ত দূরীভূত হবে। এই ল্যাব প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন, এ ল্যাব চসিক ব্যবহার করবে তা নয় চসিকের বাইরে যেকোনো সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান তাদের নির্মাণ সামগ্রী পরীক্ষা করতে পারবে। তিনি নগরীর সকল সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের পূর্বে এ ল্যাব থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ব্যবহারের আহ্বান জানান।

উদ্বোধনের পর মেয়র ল্যাবের যন্ত্রাংশ সমূহ ঘুরে ঘুরে প্রত্যক্ষ করেন।