সন্দ্বীপ থেকে আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশে যোগ দিবে ২২ হাজার নেতাকর্মী

সমাবেশে জনসমাগম বাড়াতে যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজানের পক্ষে বিভিন্ন ওয়ার্ডে সমন্বয় সভা করছে।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সন্দ্বীপ প্রতিনিধি: আগামী ৪ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের সমাবেশকে কেন্দ্র করে সন্দ্বীপ থেকে প্রায় ২২ হাজার নেতাকর্মী চট্টগ্রাম আসবেন। সম্মেলনের আগের দিন তারা নদী পাড়ি দিয়ে চট্টগ্রাম পৌঁছবেন। উপজেলার তিনটি গ্রুপ আলাদা সমাবেশে যোগ দিবেন বলে জানিয়েছেন নেতারা।

উপজেলা আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপ আলাদাভাবে সমাবেশে যোগ দিবেন। সমাবেশে নিজেদের লোকসংখ্যা বাড়াতে ইতিমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন । উপজেলা আওয়ামী লীগ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাথে সমন্বয় সভা করে নেতাকর্মীদের জমায়েত করার জন্য কাজ করছেন।তারা সন্দ্বীপের সাংসদ মাহফুজুর রহমান মিতার সাথে সমাবেশে যোগ দিবেন। তাদের সাথে উপজেলা অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা যোগ দিবেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাঈন উদ্দিন মিশন। তিনি জানান, আমরা প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে ৫’শ জন করে নেতা সহ মোট আট হাজার নেতাকর্মী একসাথে চট্টগ্রাম সমাবেশে যাব।

আওয়ামী লীগের বর্তমান ও সাবেক কমিটির নেতৃবৃন্দ এবং সহযোগী সংগঠনের পদাসীন ও পদ বঞ্চিত আরেকটি পক্ষ একসাথে জোট বেঁধেছেন। তারা চট্টগ্রামের মহা সমাবেশে যোগ দিতে জোট বেঁধে কাজ করেছেন। বর্তমান সাংসদের বিরাগভাজন হিসেবে রাজনৈতিক বিরোধের কারণে তারা একত্রিত হয়েছেন বলে দাবি গ্রুপের নেতাদের। এই দলে রয়েছেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আবদুল কাদের মিয়া, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও পৌর মেয়র জাফর উল্লা টিটু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী খসরুর স্ত্রী উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা লুৎফর নাহার, উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আকবর, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোশাররফ হোসেন লিটন ও আশরাফ উল্লা মজনু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সন্তোষপুর ইউনিয়নের চারবারের সাবেক চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান ফুলমিয়া, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির, আমাউলল্লাহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাদাত চৌধুরী সহ বিভিন্ন নেতাকর্মী।

সাবেক পৌর মেয়র জাফর উল্লাহ টিটু বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রাম আসছেন। তাই আমরা ওনার সম্মানে চট্টগ্রামের মহা সমাবেশে তৃণমূলের ছয় হাজার নেতাকর্মী একসাথে যোগ দিব।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী ও মাইটভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের তিন-তিনবারের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান আলাদাভাবে সমাবেশে আসবেন। এ উপলক্ষে তিনি বিভিন্ন ওয়ার্ড পর্যায়ে কর্মী সভা ও মতবিনিময় সভা করেছেন। তার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ,যুবলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা যোগ দিবেন বলে জানিয়েছেন মিজানুর রহমান। তিনি জানান, আমি ছাত্র রাজনীতি করে যুব রাজনীতিতে এসেছি। আমার যুবলীগের ভাইয়েরা আমার সাথে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে যোগ দিয়েছে, ঢাকার সোহরাওয়ার্দীতে গিয়েছে। এবার আমারা আট হাজার নেতাকর্মী সহ চট্টগ্রামের মহাসমাবেশে যোগ দিব।