সন্দ্বীপে অনাবাদি জমির খাসকরণ কার্যক্রম শুরু

সন্দ্বীপে অনাবাদি জমির খাসকরণ কার্যক্রম শুরু।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সন্দ্বীপ প্রতিনিধি: কৃষি জমি পরপর তিন বছর  অনাবাদি রাখায় ২.৭০ একর জমি খাস করণ কার্যক্রম শুরুর মাধ্যদিয়ে সন্দ্বীপে অনাবাদি জমি খাস করার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা ভূমি অফিস।

দেশের সকল আবাদযোগ্য কৃষি জমি আবাদের আওতায় এনে দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে গত ১৩ সেপ্টেম্বর একনেকের সভায় আবাদযোগ্য কৃষি জমি পরপর তিন বছর অনাবাদি রাখলে তা রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন অনুযায়ী খাস করনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ইতোমধ্যে সিদ্ধান্তটি উপজেলা ভূমি অফিস গণ বিজ্ঞপ্তি হিসেবে প্রচার প্রচারণা করে।

১২ নভেম্বর (শনিবার) উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.মঈন উদ্দিন চাষযোগ্য জমি তিন বছর চাষ না করায় রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন ১৯৫০ এর ৯২(১) (গ) ধারা প্রয়োগ করে হারামিয়া ইউনিয়নের ২.৭০ একর কৃষি জমি খাস করনের কার্যক্রম শুরুর মাধ্যমে একনেকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন শুরু করেন।

কার্যক্রম অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.মঈন উদ্দিন জানান, বাংলাদেশের জনসংখ্যা অনেক বেশি কিন্তু সেই তুলনায় জমির পরিমাণ কম। সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সকলকে জমি অনাবাদি না রেখে চাষের আওতায় আনার নির্দেশনা দিয়েছেন। এতে করে একদিকে আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হবো অন্যদিকে বৈদেশিক মুদ্রাও সাশ্রয় হবে।