‘শর্টস’-এ ভিডিও নেওয়ার উপায় সহজ করছে ইউটিউব

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: টিকটকের প্রতিদ্বন্দ্বী প্ল্যাটফর্ম ‘শর্টস’-এ কন্টেন্ট নির্মাতাদের বড় দৈর্ঘ্যের ভিডিও নেওয়ার উপায় আরও সহজ করার চেষ্টা করছে ইউটিউব। নিজস্ব আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপে ‘এডিট ইনটু এ শর্ট’ নামে নতুন একটি টুল যোগ করছে ভিডিও প্ল্যাটফর্মটি।

নতুন এই ফিচারের মাধ্যমে নির্মাতারা নিজস্ব যে কোনো ভিডিও থেকে সর্বোচ্চ ৬০ সেকেন্ড পর্যন্ত বাছাই করে ওই ক্লিপ ‘শর্টস এডিটর’ অপশনে আনতে পারবেন।

ওই অপশন থেকে টেক্সট ও ফিল্টার যোগ করার পাশাপাশি ‘শর্টস ক্যামেরা’ বা নিজের ফটো লাইব্রেরি থেকে ভিডিও যোগ করতে পারবেন নির্মাতা।

ফিচারটির ঘোষণা দেওয়া এক পোস্টে ইউটিউব বলছে, শর্ট তৈরি শেষ হলে তা নির্মাতার ভিডিও থেকে নেওয়া ক্লিপটির সঙ্গে লিংকড হয়ে যাবে, যেটি নির্মাতার বড় দৈর্ঘ্যের কনটেন্ট প্রচারণার জন্য একটি ভালো ‘টুল’ বানাবে ‘শর্টস’কে।
ইউটিউব যদি ফিচারটিতে ‘মনিটাইজেশন অপশন’ যোগ করার পরীক্ষা চালিয়ে যায়, তাহলে এই সব পদক্ষেপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একজন দর্শক যদি এই টুলের মাধ্যমে তৈরি কোনো ‘শর্ট’ উপভোগ করেন, তাহলে তাকে নির্মাতার চ্যানেলে যেতে হবে না এবং পুরো ভিডিওটিও খুঁজতে হবে না।

এটি ‘কাট’ বা অন্যান্য টুলের মতো নয়, যা বড় দৈর্ঘ্যের ভিডিও থেকে কেবল পাঁচ সেকেন্ড শর্ট বা ক্লিপে ব্যবহার করতে দেয়। এর পাশাপাশি, অন্যান্য নির্মাতার আপলোড করা ভিডিও’র ক্ষেত্রে ‘এডিট ইনটু এ শর্ট’ টুল ব্যবহার করা যাবে না।

এই টুল কেবল নির্মাতার নিজের আপলোড করা ভিডিও’র ‘ক্রিয়েট’ মেনুতে দেখা যাবে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ।

২০২০ সালে শর্টস ফিচারটি চালুর পর থেকেই এর ওপর অনেক বেশি নজর দিয়েছে ইউটিউব। একটি তহবিল গঠন করে নির্মাতাদের ফিচারটি ব্যবহারে উৎসাহিত করতে চেয়েছিল প্ল্যাটফর্মটি, যেখানে ‘শর্টস’ আপলোড করলে অর্থ সহায়তা পেতেন নির্মাতারা।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট টেকরেডার বলছে, প্ল্যাটফর্মটি এরইমধ্যে সাইটে থাকা ভিডিওগুলোকে শর্টস-এ রূপান্তর করে নিজস্ব লাইব্রেরির আকার বড় করছে। তবে, ওই সব ভিডিও উলম্বভাবে ধারণকৃত ও এর দৈর্ঘ্য ৬০ সেকেন্ডের ছোট হতে হবে।