লোহাগাড়ায় ঐতিহাসিক চুনতী সিরাতুন্নবী (সঃ) মাহফিলে আখেরি দিবসে আলোচনা করবেন যারা

লোহাগাড়ায় ঐতিহাসিক চুনতী সিরাতুন্নবী (সঃ) মাহফিলে আখেরি দিবসে আলোচনা করবেন যারা
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

লোহাগাড়া প্রতিনিধি: দক্ষিণ চট্টগ্রামের মুসলিমদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব লোহাগাড়া উপজেলায় চুনতির আশেকে রসুল (স.) অলিকুল শিরোমণি হযরত আলহাজ্ব শাহ্ মাওলানা হাফেজ আহমদ (রা.আ:) শাহ্ সাহেব কেবলা কর্তৃক প্রবর্তিত ঐতিহাসিক ১৯ দিনব্যাপী ৫২তম সিরাতুন্নবী (সা.) মাহফিলের সমাপনী দিবস আজ। 

বুধবার (২৬ অক্টোবর) সকাল ৯টায় শুরু হয়ে বৃহস্পতিবার ফজর নামাজের পূর্বে খুতবায়ে ছদর, মিলাদ মাহফিল ও আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে মাহফিলের সমাপ্তি ঘটবে।

সমাপনী দিবসে আলোচনা পেশ করবেন, নারায়নগঞ্জ জৈনপুরী দরবারের পীর ড. মাওলানা এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী ওয়া ছিদ্দিকী, চবি’র আরবি বিভাগের অধ্যাপক ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিঃ শরীয়া বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মাওলানা গিয়াস উদ্দীন তালুকদার, বায়তুশ শরফের পীর মাওলানা মুহাম্মদ আবদুল হাই নদভী, ড. মাওলানা আ.ফ.ম খালেদ হোছাইন, লোহাগাড়ার বিশিষ্ট ইসলামিক স্কলার শাহজাদা ফানাফিল্লাহ্ বিন আজাদ, ঢাকার ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য প্রফেসর ড. মাওলানা আহসান উল্লাহ্, ঢাকার ইসলামি চিন্তাবিদ ও গবেষক ড. মাওলানা ঈসা শাহেদী, মাওলানা শহিদুল ইসলাম বারাকাতি, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ্ হামযা, কাজী মাওলানা মো. নাছির উদ্দীন, হাফেজ মাওলানা মো. শাহ্ আলম সাহেব, মাওলানা এহসান উল্লাহ্ আব্বাসী, ড. মাওলানা আ.ক.ম আবদুল কাদের ও মাওলানা শাহাদত হোছাইন প্রমুখ। 

এতে সভাপতিত্ব করবেন এ মাহফিল মুতাওয়ারী কমিটির সভাপতি হযরত শাহ্ সাহেব কেবলার দৌহিত্র মাওলানা হাফিজুল ইসলাম আবদুল কালাম আজাদ। তেলাওয়াতে কালাম পাঠ করবেন-ক্বারী মাওলানা ওবায়দুল্লাহ আব্বাসী। না’আতে রসূল (সা:) পাঠ করবেন হযরত শাহ্ সাহেব কেবলার দৌহিত্র শাহ্জাদ মাওলানা ইমাম বায়হাকী (ইতমাম)।

জানা যায়, চুনতী সীরাত মাহফিলে ৩ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। আখেরি মোনাজাতে সারাদেশের বিভিন্ন জেলা ছাড়াও ভারত, মিয়ানমার থেকে এসে অনেকে অংশগ্রহণ করেন। এ দিন লাখ লাখ মুসল্লির ঢল নামে এ মাহফিলে। এতে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষ সরকারী-বেসরকারী, উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও রাজনীতিবিদসহ প্রায় ১০ লক্ষাধিক ধর্মপ্রাণ মুসলিম মাহফিলে উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, চুনতির আলহাজ্ব শাহ মাওলানা হাফেজ আহমদ (রহ.) ১৯৭২ সনে এ মাহফিলের গোড়াপত্তন করেন। তখন থেকে প্রতিবছর রবিউল আউয়াল মাসের ১১ তারিখ এ মাহফিল শুরু হয়। মাহফিল চলাকালে প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষকে খাওয়ানো হয় তাবারুক। মাহফিলের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য ১৩ একর আয়তনের বিশাল সীরাত ময়দান গড়ে তুলেছেন চুনতির শাহ ছাহেব।