রোহিঙ্গাদের ত্রাণের চাল কালোবাজারে, বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সরবরাহকৃত ত্রাণের চাল মজুদ করে কালোবাজারে বিক্রি করার অভিযোগে সন্দেহভাজন হিসেবে জামাল উদ্দিন গাজী নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গ্রেফতারকৃত জামাল উদ্দিন গাজী (৪৫) জেলার সুবর্ণচর উপজেলার পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের হাজীপুর গ্রামের মৃত মো. নূর ইসলাম ছেলে। তিনি জেলা কৃষক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে তিনি সুবর্ণচর উপজেলা বিএনপির সভাপতি প্রার্থী।

রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে হাতিয়া উপজেলার ১নং হরণী ইউনিয়নের ভূমিহীন বাজার সংলগ্ন জনতা বাজার ঘাট থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, গত ১৯ অক্টোবর ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে রিলিফের চাল ট্রলারযোগে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে কালোবাজারির মাধ্যমে নিয়ে আসা হয় সুবর্ণচরের চেয়ারম্যান ঘাটে। এরপর ট্রাকে লোড করার সময় লোকজনের সন্দেহ হলে চৌকিদার করিম পুলিশকে খবর দেন। তাৎক্ষণিক ট্রাকগুলো ও আলামতসহ পরিবহণ কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিদের চরজব্বার থানা পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নেয়।

ওই সময় রিলিফের চাল কালোবাজারে বিক্রি করার অভিযোগ উঠে বিএনপি নেতা গাজীর বিরুদ্ধে। গত ৩ বছরে এই বিএনপি নেতা রোহিঙ্গা পাচার ও রিলিফের চাল কালোবাজারে বিক্রি করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন বলে অভিযোগ স্থানীয় লোকজনের। তার বিরুদ্ধে গত ২০ অক্টোবর বিশেষ ক্ষমতা আইনে চরজব্বর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেফতারকৃত গাজী এ মামলা ছাড়াও আরও ১০ মামলার পলাতক আসামি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।