রাশিয়া-ইউক্রেন ইস্যুতে সুর পাল্টাচ্ছে পশ্চিমা গণমাধ্যম

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা বিশ্বের নিষেধাজ্ঞায় তেমন কোন প্রভাব পড়ছে না রাশিয়ার ওপর। এদিকে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের মাত্রা দিন দিন বাড়ছে। এমন অবস্থায় সুর পালটেছে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলোর। যুদ্ধের প্রকৃত অবস্থা তুলে ধরে ইউক্রেনে শান্তি ফেরাতে আলোচনার ওপর জোর দেয়ার তাগিদ দিচ্ছে এসব গণমাধ্যম। এক প্রতিবেদনে এ দাবি করেছে রুশ গণমাধ্যম আরটি।

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর রাশিয়া বিরোধী খবর প্রচারের হিড়িক দেখা যায় পশ্চিমাগণমাধ্যমে। রুশ হামলা জোরদারের সাথে সাথে বেড়েছে নেতিবাচক প্রতিবেদনের সংখ্যা। তবে সম্প্রতি সেই সুর পাল্টেছে পশ্চিমা সংবাদমধ্যমগুলো।

২ জুন ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ানের অর্থনীতি বিষয়ক সম্পাদক ল্যারি এলিয়ট ঘোষণা দেন, অর্থনৈতিক যুদ্ধে জয়ী হচ্ছে রাশিয়া। পশ্চিমারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে যে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা কাজে আসছে না বলে দাবি করেন তিনি।

এলিয়টের মতে, ইউক্রেনে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের রকেট লঞ্চার পাঠানোর মাধ্যমে প্রমাণ হয়, নিষেধাজ্ঞা কাজে আসছে না।

গত ৩০ মে গার্ডিয়ানের কলামিস্ট সাইমন জেনকিন্স একই দাবি করেন। ইউক্রেন থেকে সেনা প্রত্যাহারে রাশিয়াকে বাধ্য করতে নিষেধাজ্ঞা কার্যক্রম ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

আরেক ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিরক্ষা সম্পাদক কন কফলিনের মতে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য ইউক্রেনের আরও অস্ত্র সহায়তা প্রয়োজন।

রুশ গণমাধ্যম আরটির মতে, গত মাসে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য ইকোনমিস্ট স্বীকার করতে বাধ্য হয় যে, নিষেধাজ্ঞার প্রভাব কাটিয়ে উঠছে রুশ অর্থনীতি। বিপরীতে, জ্বালানি সংকট, নিত্যপণ্যের ব্যয় বৃদ্ধি ও রেকর্ড মূল্যস্ফীতির শিকার হচ্ছে পশ্চিমারা।

কিয়েভে অস্ত্র পাঠিয়ে আলোচনার পথ বন্ধ করার পাশাপাশি, যুদ্ধের তীব্রতা বাড়িয়ে দেয়ার দায়ে বাইডেন প্রশাসনের সমালোচনা করেন নিউ ইয়র্ক টাইমসের কলামিস্ট ক্রিস্টোফার ক্যাল্ডওয়েল।

যুদ্ধের প্রকৃত অবস্থা তুলে ধরে ইউক্রেনে শান্তি ফেরাতে আলোচনার ওপর জোর দেয়ার তাগিদ দিচ্ছে এসব গণমাধ্যম।