রাবিতে উর্দু বিভাগের পরিক্ষায় ফল বিপর্যয়, সভাপতির কক্ষে তালা

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) উর্দু বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের দ্বিতীয় সেমিস্টার পরীক্ষার ফল বিপর্যয়ের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে ফল প্রকাশের পর পুনর্মূল্যায়নের দাবিতে বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আতাউর রহমানের কক্ষে তালা লাগিয়ে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

এসময় তারা বিভাগের কার্যক্রম বন্ধ করে দেন। এরপর বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা তারেক নূর সেখানে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনায় বসেন। দীর্ঘ আলোচনা শেষে ছাত্র উপদেষ্টা শিক্ষার্থীদের অভিযোগ ও দাবিসমূহ লিখিতভাবে গ্রহণ করেন এবং সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা আজকের মতো আন্দোলন স্থগিত করেন।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিভাগের শিক্ষকরা ইচ্ছাকৃতভাবে তাদের কম নম্বর দিয়েছেন। শিক্ষকদের অন্তঃর্কোন্দল, পরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যানের স্বেচ্ছাচারিতা, শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন, পক্ষপাতিত্ব এবং বিভাগের সভাপতির দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ করেন তারা।

বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ৩৫ জন নিয়মিত ও তিনজন অনিয়মিত শিক্ষার্থী রয়েছে। তারা প্রত্যেকেই প্রথম সেমিস্টারের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। এপ্রিল তাদের দ্বিতীয় সেমিস্টারের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়। ৩৮ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলেও ৩০ জনের ফল প্রকাশিত হয়েছে। এদের মধ্যে ছয়জন শিক্ষার্থী একটি করে কোর্সে অকৃতকার্য হন। এছাড়া বাকি আটজনের মধ্যে ছয়জন নিয়মিত এবং দুজন অনিয়মিত শিক্ষার্থীর ফলই প্রকাশিত হয়নি।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগের বিষয়ে বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আতাউর রহমান বলেন, ফল দেখে আমার মনে হয়েছে সত্যিই ফল বিপর্যয় হয়েছে। কিন্তু কেন এমনটা হয়েছে সেটি স্পষ্ট নয়। শিক্ষার্থীদের ফল পুনর্মূল্যায়নের দাবি আমি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে জানাব। আশা করছি, শিক্ষার্থীরা তাদের ন্যায্য ফল থেকে বঞ্চিত হবে না।

এ বিষয়ে ছাত্র উপদেষ্টা এম তারেক নূর বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি ন্যায্য। এখানে আসলেই ফল বিপর্যয় হয়েছে। রেজাল্ট শিট দেখে বিষয়টি আমার কাছে স্বাভাবিক মনে হয়নি। শিক্ষার্থীরা লিখিতভাবে তাদের অভিযোগ ও দাবিসমূহ দিয়েছে। রোববার তাদের সাথে আলোচনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।