রাজধানীতে ভারী বর্ষণ; বিপাকে রিকশা চালকেরা

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় অশনি এখন গতিপথ পরিবর্তন করে দুর্বল হয়েছে। এর প্রভাবে গতকালকের মতো আজও ঢাকাসহ দেশের বেশিরভাগ অঞ্চলে বৃষ্টি আশঙ্কা রয়েছে। বুধবার ১১ (মে) আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে টানা বৃষ্টি নাও হতে পারে। থেমে থেমে হালকা, মাঝারি বা ভারী বৃষ্টি হতে থাকবে।

এদিকে আবহাওয়ার ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে রাজধানীর ঢাকাতে বৃষ্টি হওয়ায় দিনমজুর রিকশা চালকদের জীবন বিপর্যয়ে পড়েছে। থেমে থেমে বৃষ্টি হওয়ার ফলে রিকশা নিয়ে বাহিরে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে।রিকশাচালক মতিন মিয়া যাত্রীর অপেক্ষায় বসে আছেন। তিনি অন্যের রিকশা ভাড়ায় চালান। প্রতিদিন মালিককে দিতে হয় ১২০ টাকা। আজ বুধবার ১১ (মে) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তাঁর আয় হয়েছে ৩০০ টাকা। রাতে যদি এভাবে বৃষ্টি হতে থাকে তাহলে রিকশা নিয়ে বাহিরে বের হওয়া কঠিন হয়ে পড়বে তবুও, বের হতে হবে। তখন হয়তো আরও ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পাবো। ওই টাকা দিয়ে পরিবারের জন্য চাল-ডাল কিনবো

মতিন মিয়া আরও বলেন, বৃষ্টি না হলে আমি প্রতিদিন ১ হাজার থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা পর্যন্ত রোজগার করি। কিন্তু কয়েকদিন ঢাকাতে ভারী বর্ষণ হওয়ার ফলে, আয় এসে দায়িয়েছে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকায়। যে টাকা ইনকাম করছি মালিককে দেওয়ার পর বেশি টাকা থাকেনা। এরকম সামনে অব্যাহত থাকলে সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়বে।

মতিন মিয়া রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার বাসিন্দা। স্ত্রীসহ দুই ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে তার সংসারে সদস্য ৫ জন। রিকশা চালিয়ে সংসার ভালোই যাচ্ছিলো তাদের কিন্তু গত কয়েকদিন থেমে থেমে বৃষ্টি হওয়ার কারনে তাদের টিকে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে।

আরেক রিকশাচালক মো. সোলায়মান মিয়ার সংসারে মা-বাবা, স্ত্রী, এক মেয়ে, তিন বোন ও চার ভাই রয়েছে। সবার খরচ তাঁকে দিতে হয়। সোলায়মান বলেন, আজ সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রিকশা চালাইয়া ৪০০ টাকা রোজগার হইছে। ভাড়ায় রিকশা চালাই। মালিককে দিতে হবে ১২০ টাকা। বৃষ্টির কারণে আয় কম হচ্ছে। ডাল-ভাত খাইয়া কোনো রকমে দিন কাটাইতাছি।শুধু সোলায়মান ও মতিন মিয়া নয়। অশনির প্রভাবে ঢাকায় ভারী বর্ষণ হওয়ার ফলে অনেকে এই সমস্যার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে।