রাঙ্গুনিয়ায় রাতের আঁধারে প্রেমিকাকে এসিড নিক্ষেপ, প্রেমিক গ্রেফতার

ছবি: প্রেমিকাকে এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় গ্রেফতার প্রেমিক মো. নুরুল আজিম।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় রাতের আঁধারে ইয়াসমিন আক্তার (২০) নামে এক তরুণীকে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে। এতে ওই তরুণীর চোখ, মুখসহ শরীরের অর্ধেক অংশ ঝলসে গেছে। বুধবার দিনগত রাত সোয়া ২টার দিকে উপজেলার বেতাগী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ডিঙ্গেল লোংগা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার (৫ মে) ভোরে অভিযুক্ত তার প্রেমিক মো. নুরুল আজিমকে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আজিম কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনা থানার রাইখালী ইউনিয়নের খন্তখাটা এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে। পেশায় সে সিএনজি অটোরিকশা চালক বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় ইয়াসমিন আকতারের বড় ভাই আবু তাহের বাদী হয়ে মো. আজিমকে আসামি করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও একজনকে বিবাদী করে রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদী আবু তাহের বলেন, রাত আড়াই টার দিকে হঠাৎ ইয়াসমিনের চিৎকার শুনে ছুটে গিয়ে দেখি তার শরীরের অর্ধেক অংশ ঝলসে গেছে। তার এই অবস্থা কে করেছে জানতে চাইলে ইয়াসমিন জানায়, আজিম জানালা দিয়ে এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে গেছে। তাৎক্ষণিক পুলিশকে খবর দিলে তাদের সহযোগিতায় ইয়াসমিনকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

মামলার এজহার সুত্রে জানা যায়, আজিমের সাথে ইয়াসমিনের গত তিন মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। এক পর্যায়ে ইয়াসমিন জানতে পারে আজিম বিবাহিত এবং তার স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। এজন্য আজিমের সাথে সে প্রেমের সম্পর্ক ছিন্ন করে। এতে প্রেমিক আজিম ক্ষুব্ধ হয়ে বিভিন্ন সময় তাকে পথেঘাটে এমনকি বাড়িতে এসেও নানা হুমকি ধমকি দিচ্ছিল। এর ধারাবাহিকতায় আজিম অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির সহায়তায় এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি (তদন্ত) খান নুরুল ইসলাম বলেন, ‘মধ্য রাতের দিকে এসিড নিক্ষেপের ঘটনা শুনে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে যায়। গিয়ে ইয়াসমিন আকতারকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করি। এই ঘটনায় বাদীপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রেমিক আজিমকে গ্রেফতারে আমরা তাৎক্ষণিক অভিযান শুরু করি। ছদ্মবেশ ধারণ করে অভিযান চালিয়ে ভোরেরদিকে তাকে নিজবাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এই ঘটনায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন ধমন আইনে আজিমের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও একজনকে বিবাদী করে একটি মামলা নেয়া হয়েছে। অভিযুক্ত আজিমকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে একইদিন দুপুরের দিকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।