রাঙ্গুনিয়ায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

গ্রেফতার মো. মোরশেদকে(২৫)।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি: রাঙ্গুনিয়ায় পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার মূল আসামি মো. মোরশেদকে (২৫) গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৭।

গত মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে নগরীর পাঁচলাইশ থানার ষোলশহর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয়টি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নিশ্চিত করেন র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার।

গ্রেফতার মোরশেদ উপজেলার লালানগর ইউনিয়নের দক্ষিণ ঘাগড়া খিলমোগল এলাকার ইদ্রিস মিয়ার ছেলে। তাকে রাঙ্গুনিয়া থানায় হস্তান্তর করলে বুধবার (৩০ নভেম্বর) সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে মামলায় অভিযুক্ত অপর আসামি একই এলাকার নূর মোহাম্মদের ছেলে অটোরিক্সা চালক মো. শোয়াইবকে (১৯) গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।

জানা যায়, ভিকটিম ওই ছাত্রীর বাড়িও একই ইউনিয়নে। সে স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। অভিযুক্ত মোরশেদ দীর্ঘদিন ধরে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে ইভটিজিং করে আসছিল। মেয়েকে উত্যক্ত না করতে তাকে বেশ কয়েকবার সতর্ক করেছিল ভুক্তভোগীর মা।

এই ব্যাপারে ভুক্তভোগীর মা জানান, তার মেয়ে গত ২০ নভেম্বর সকালে স্কুলে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর থেকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি তাকে। পরদিন সোমবার মেয়ের বাবা থানায় নিখোঁজ ডায়রি করেন। পরে তারা জানতে পারেন, ওই দিন তার মেয়ে স্কুলে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হলে পথে তারা গতিরোধ করে। পরে তারা সিএনজি চালিত অটোরিকশায় করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। মেয়েকে খোঁজাখুজির একপর্যায়ে গোপন সংবাদে খবর পেয়ে ২৪ নভেম্বর কক্সবাজারের রামু থানার চৌমুহনী এলাকার একটি বাসা থেকে মেয়েকে উদ্ধার করেন তারা। পরে অভিযুক্ত এই দু’জনকে আসামি করে রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও রাঙ্গুনিয়া থানার উপপরিদর্শক আবু বক্কর ভূইয়া বলেন, “মামলা দায়েরের পর অটোরিকশা চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল আসামি মোরশেদকে র‍্যাব গ্রেফতার করে আমাদের হস্তান্তর করলে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে সে।”