রাঙ্গুনিয়ার চন্দ্রঘোনা খ্রীষ্টিয়ান কুষ্ঠ চিকিৎসা কেন্দ্রে অ্যাডভোকেসী সভা

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চন্দ্রঘোনা-কদমতলী ইউনিয়নের লিচু বাগান খ্রীষ্টিয়ান কুষ্ঠ চিকিৎসা কেন্দ্রের আয়োজনে এড্ভোকেসী সভা শনিবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে হাসপাতাল কেন্দ্রের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় হাসপাতালের চলমান অর্থনৈতিক সংকট ও বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরে বক্তব্য দেন চন্দ্রঘোনা খ্রীষ্টিয়ান ও কুষ্ঠ চিকিৎসা কেন্দ্রের পরিচালক চিকিৎসক প্রবীর খিয়াং , উপ-পরিচালক চিকিৎসক বিলিয়াম এ সাংমা, চিকিৎসক শৈলু মং চাক, হাসপাতালের প্রোগ্রাম অফিসার বিজয় মারমা, রাঙ্গুনিয়া প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাসুদ নাসির, আব্বাস হোসাইন আফতাব, অর্থ সম্পাদক জগলুল হুদা, কাপ্তাই প্রেস ক্লাব সভাপতি কবির হোসেন, সাবেক সভাপতি কাজী মোশাররফ হোসেন, বর্তমান সিনিয়ার সহ সভাপতি নজরুল ইসলাম লাভলু, সাধারণ সম্পাদক ঝুলন দত্ত, যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর হোসেন, অর্থ সম্পাদক নুর হোসেন মামুন প্রমুখ। হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রবীর খিয়াং তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ঘোষনা অনুযায়ী আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে জিরো লেপ্রসীর (কুষ্ঠ) যে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন সেই লক্ষ্যে এই চিকিৎসা কেন্দ্র কাজ করে যাচ্ছেন। ইংল্যান্ড ভিত্তিক দ্যা লেপ্রসী মিশন এর অর্থায়নে এই কুষ্ঠু হাসপাতাল পরিচালিত হতো।

কিন্তু ১৯৯৪ সালের পর থেকে তাদের অর্থায়ন কমিয়ে দেয় এবং ২০১০ সালের পর থেকে তাদের অর্থায়ন একেবারে বন্ধ করে দেয়। এরপর থেকে কোন রকম সরকারি বেসরকারি সাহায্য সহায়তা ছাড়া অনেকটা খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে হাসপাতালটি। এরপরও সম্পূর্ণ বিনামূল্যে চন্দ্রঘোনা কুষ্ঠ হাসপাতাল এর রোগীদের চিকিৎসা সহায়তার পাশাপাশি তাদেরকে ঔষধ এবং খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া কুষ্ঠ রোগীদের জন্য একটা আশ্রম গড়া হয়েছে। তবে আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় সাহায্য ছাড়া এই কার্যক্রম চালানো কঠিন। সেই ক্ষেত্রে বিত্তবান লোকেরা এগিয়ে আসলে কুষ্ঠ রোগীরা চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হবে না। সভায় অংশ নেওয়া কুষ্ঠ রোগী আনোয়ার হোসেন এবং শেফালি আক্তার অভিমত ব্যক্ত করে বলেন, পারিবারিক পরিবেশে আন্তরিকতার সাথে তাঁরা এই কেন্দ্রে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করে আসছেন।