রাউজানে পুকুরে ডুবে দেড় বছর বয়সী শিশুর মৃত্যু

রাউজান (চট্টগ্রাম): নিহত শিশু মাইমুন ইসলাম মজুমদার
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাউজান প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের রাউজানে পুকুরে ডুবে মাইমুন ইসলাম মজুমদার নামে দেড় বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (২২ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১ টায় রাউজান উপজেলার কদলপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের খলিফাপাড়া গ্রামে এই হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটে।

নিহত শিশুটি ঊনসত্তরপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মিজানুর ইসলাম মজুমদারের একমাত্র পুত্র।

নিহতের চাচা রাউজান উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি মাসুদ হোসেন রুবেল মজুমদার ও প্রবাসী মঈনুল ইসলাম মজুমদার জানান, আজ (সোমবার) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে শিশু মাইমুন ইসলাম মজুমদার মা-বাবা, দাদা-দাদী সবার সম্মুখে উঠানে খেলছিলেন। হঠাৎ উঠানে তার উপস্থিতি না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন সবাই। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বাড়ির পেছনের পুকুর হতে ডুবন্ত অবস্থায় তার বাবা তাকে উদ্ধার করে পাহাড়তলী চৌমুহনীতে এক চিকিৎসকের চেম্বারে নিয়ে গেলে ঐ চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এই নিয়ে গত ৭দিনে এই কদলপুর ইউনিয়নে পুকুরে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গত ১৭ আগস্ট ৯নং ওয়ার্ডের মাইজপাড়া জিহাদ নামে ৬ বছর বয়সী শিশু ভাইয়ের সাথে পুকুর বরশি বাইতে এসে পুকুরে ডুবে মারা যায়। ১৯ আগস্ট ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের মীর বাগিছা এলাকায় আব্দুল হামিদ ফকিরের বাড়ির মুফিজুর রহমান মাস্টারের বাড়িতে মায়ের সাথে বেড়াতে এসে আহান চৌধুরী নামে ৮মাস বয়সী এক শিশু বাড়ির পেছনের পুকুর ডুবে মারা যায়।

এই নিয়ে কদলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী বলেন, অভিভাবকদের অসচেতনতার কারণে পুকুরে ডুবে শিশু মৃত্যুর ঘটনা গুলো ঘটছে। আগেরকার মায়েরা শিশুর কোমরে ঝুনঝুনি বেঁধে দিয়ে কাজের ফাঁকে শিশুর গতিবিধি লক্ষ রাখতেন। এই সময়ে মায়েদের এই পদ্ধতি অবলম্বন করা উচিত বলে মনে করি। মোক্ষম কথা, পুকুরে ডুবে শিশু মৃত্যুর ঘটনা রোধে অভিভাবকদের সচেতনতার বিকল্প নেই।