মেয়েটি ১৩ বছরেই মা হল ; তদন্তে পুলিশ

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন
ঝালকাঠিতে ১৩ বছরের এক শিশু একটি সন্তান প্রসব করার পর তার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

নবজাতকের বাবা কে, তা বের করতে শিশুটির সৎ বাবাকেও সন্দেহের আওতায় রাখা হয়েছে।

ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া শিশুটি তার মা ও সৎ বাবার সঙ্গে ঝালকাঠি শহরের কালীবাড়ি এলাকায় থাকে।

শিশুটি অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর পেয়ে গত ১০ সেপ্টেম্বর তাকে পুলিশ হেফাজতে নেয়।

ঝালকাঠি সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবু তাহের বলেন, “শহরের একটি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির এ ছাত্রীটি অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে খবর পেয়ে গত ১০ সেপ্টেম্বর আমরা তাকে থানা হেফাজতে আনি।”

শিশুটি তার মা ও সৎ বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে, অর্থের লোভে তাকে অন্যদের সঙ্গে দৈহিক সম্পর্কে বাধ্য করা হত।

এরপর পুলিশ উদ্যোগী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে শিশুটির মা ও সৎ বাবাকেও গ্রেপ্তার করে।

শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তির পর বুধবার সে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয়।

হাসপাতালটির নার্স জানিয়েছেন, অপ্রাপ্ত বয়সে মা হওয়ায় শিশুটি কিছুটা অসুস্থ। তবে নবজাতক সুস্থ রয়েছে।

এলাকারবাসীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ওই শিশুটির মায়ের সঙ্গে ১৫ বছর আগে বিয়ে হয় তার বাবার। শিশুটি জন্মের পর তাদের সংসার ভেঙে যায়। এরপর একমাত্র মেয়েটিকে নিয়ে কালীবাড়ি এলাকার ব্যক্তিটিকে বিয়ে করেন ওই নারী।

শিশুটি সাংবাদিকদের জানায়, সে যখন পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে, তখন থেকেই তাকে জোর করে অন্য পুরুষের সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করতেন তার মা ও সৎ বাবা। এমনকি সৎ বাবাও তাকে ধর্ষণ করতেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ঝালকাঠি সদর থানার এসআই মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, “জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতৃ পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার জন্য নবজাতক এবং ভিকটিমের সৎ বাবার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।  ডিএনএ পরীক্ষার জন্য তা ঢাকা সিআইডিতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। একই সাথে অন্যান্য আইনি পদক্ষেপও চলছে।”