মহেশখালীতে শিক্ষক হত্যায় ২৬ জনকে আসামী করে মামলা

শিক্ষক জিয়াউর রহমান
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

মহেশখালী প্রতিনিধি: মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম প্রকাশ্য দিবালোকে শিক্ষক জিয়াউর রহমান হত্যাকান্ডের দুই দিন পর মহেশখালী থানায় আলোচিত হত্যা মামলটি দায়ের করা হয়েছে। নিহতের সন্তান তৌহিদুর রহমান বাদী হয়ে মহেশখালী থানায় এ হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। চাঞ্চল্যকর মামলাটি দায়ের করার পর আসামীদের অনেকে গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে চলে গেছে। তবে পুলিশ বলছে হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। ইতিমধ্যে ওই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সন্দেহভাজন ৭ জন কে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, শনিবার (২৭ আগস্ট) ২৬ জনকে এজাহার নামীয় এবং কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মহেশখালী থানায় এজাহার দায়ের করেছে নিহতের পুত্র তৌহিদুর রহমান। মামলার বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন মহেশখালী থানার ওসি প্রণব চৌধুরী।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) বেলা দুপুরের সময় উপজেলার কুতুবজুম ইউনিয়নের তাজিয়াকাটা নামক এলাকার সুমাইয়া (রা) দাখিল বালিকা মাদ্রাসার সুপার জিয়াউর রহমান কে মাদ্রাসা ভিতর ঢুকে টেনে হেচড়ে বাহির করে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষের লোকজন। এসময় বাঁধা দিতে এসে মারাত্মক ভাবে আহত হন জিয়াউর রহমানের স্ত্রী রহিমা বেগম। নিহতের স্ত্রী রহিমা বেগম চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এখনও (বেলা ৪টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) থানায় মামলাটি ফর্মাল রেকর্ড হয়নি বলে জানা গেছে।