ভোরবাজার এডভোকেট বেলায়েত হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানের তারিখ ঘোষণা

১৮ ফেব্রুয়ারি সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান,রেজিস্ট্রেশনের শেষদিন ৩১ ডিসেম্বর

সূবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণে ইচ্ছুকরা আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

ফেনী প্রতিনিধি: ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার ভোরবাজার এডভোকেট বেলায়েত হোসেন উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব ২০২৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি স্কুল প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণে ইচ্ছুকরা আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

শুক্রবার (৪ নভেম্বর) রাতে স্কুলের ডা. মাহবুবুল হক অডিটোরিয়ামে সুবর্ণজয়ন্তী আয়োজনে গঠিত ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ফেনী উপকমিটির সঙ্গে কেন্দ্রীয় আয়োজক কমিটির এক যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির সভাপতি এ আর এম ছালারে জাহান এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় এই যৌথ সভায় ঢাকা উপ কমিটির পক্ষে সভাপতি কাজী মাওলানা এরশাদ উল্যাহ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রাজিব,চট্টগ্রাম উপকমিটির পক্ষে কমিটির সদস্য বাহার উদ্দিন ও নুরুল ইসলাম মিন্টু এবং ফেনী উপকমিটির পক্ষে সভাপতি শাহাদাত হোসাইন সুরুজ ও সাধারণ সম্পাদক এরশাদ উল্যাহ স্ব স্ব কমিটির তৎপরতা তুলে ধরেন। পরে সবার সম্মতিতে অনুষ্ঠানের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। একইসঙ্গে অনুষ্ঠান আয়োজনের বাজেট প্রনয়নসহ কর্মপদ্ধতিও নির্ধারণ করা হয়। আগামী ১০ নভেম্বর থেকে ১০০ দিন ক্ষণ গণনা করারও সিদ্ধান্ত হয়।

যৌথ সভায় ভোরবাজার এডভোকেট বেলায়েত হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মঞ্জুরুল ইসলাম ও স্কুল কমিটির সভাপতি একাউন্টেন্ট সাহাব উদ্দিনসহ স্কুলের সাবেক-বর্তমান শিক্ষক ও কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির সভাপতি এ আর এম ছালারে জাহান বলেন, সর্বসম্মতিতে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি সূবর্ণজয়ন্তী উৎসব আয়োজনের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। আমরা একটি স্মরণীয় আয়োজন করতে চাই। যেন স্কুলের সাবেক-বর্তমান শিক্ষার্থীরা একই প্রাণে মিলতে পারে। একইসঙ্গে স্কুলের ইতিহাস ঐতিহ্যও সবাই জানতে পারে।

তিনি আরও বলেন, এই স্কুল আমাদের এই অঞ্চলের শিক্ষায় বৈপ্লবিক অবদান রেখেছে। শুধু স্কুলের শিক্ষার্থীরা নয়, এর উপকারভোগী হয়েছে পুরো এলাকার মানুষ। তাই এই উদযাপনকে আমরা এলাকার সর্বস্তরের জনগণের উদযাপনে রূপ দিতে চাই। জমকালো একটি প্রোগ্রাম আয়োজনের স্বার্থে সবার অংশগ্রণ জরুরি। তাই ব্যাপকহারে রেজিস্ট্রেশনে জোর দিতে হবে।