ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কুয়েত প্রবাসীর সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ: অভিযুক্ত শাহিনের বদলির আদেশ

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কুয়েতের বাংলাদেশ দূতাবাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কুয়েত প্রবাসী আজিজুল আকরামের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের দায়ে স্টাফ শাহিন কবিরকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বদলি করা হয়েছে। রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংস্থাপন-২ শাখার সহকারী সচিব আলমগীর হোসেন স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

উক্ত আদেশে আরও বলা হয়েছে, নিরাপত্তা সিকিউরিটি গার্ড শাহিনকে ১৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে মন্ত্রণালয়ে যোগদান করতে নির্দেশ দেয়া হয়। প্রসঙ্গগত ২ সেপ্টেম্বর কুয়েতের মিসিলায় নতুন স্থানান্তরিত বাংলাদেশ দূতাবাসে গরমে অতিষ্ঠ হয়ে এক তলায় গিয়ে বিশ্রাম নিলে সেখানে দায়িত্বে থাকা সিকিউরিটি গার্ড ওই প্রবাসীকে নিচে চলে যেতে বললে এক পর্যায়ে দুই জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়।

এই ধরণের একটি অসৌজন্যমূলক আচরণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ফলে দেশে বিদেশে মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। সিলেট প্রবাসী ও সমাজকর্মী আহমেদ রিয়াজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া বিষয়টি প্রবাসীদের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষে নজরে আনতে লিখিত অভিযোগ করেন।

শাহিন কবিরকে বদলির মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে প্রবাসী বান্ধব এই সরকার। বাহিরের দেশে দূতাবাস গুলোতে যে সকল প্রবাসীরা কর্মরত আছেন তাদের জন্য এটি একটি বার্তা হয়ে থাকবে।

অপ্রত্যাশিত আচরণের জন্য দূতাবাসের স্টাফ শাহিনের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করায় এবং বাংলাদেশ দূতাবাস, কুয়েত ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন কুয়েত প্রবাসীরা। তারা আরও বলেন প্রবাসের বুকে দূতাবাস হল আমাদের জন্য একখন্ড বাংলাদেশ। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরণের ঘটনা আর না ঘটে সেজন্য দূতাবাস ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান কুয়েত প্রবাসীরা।

ভুক্তভোগী আজিজুল আকরাম বলেন, শাহিন আমার সঙ্গে যে আচরণ করেছে তার এই শাস্তিটা সকল দূতাবাস ও প্রবাসীদের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আমি বাংলাদেশি নিযুক্ত কুয়েতের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম স্যারকে ধন্যবাদ জানাই দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত করে অভিযুক্ত শাহিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া জন্য।

কাউন্সিলর দূতালয় প্রধান মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান, দূতাবাসের স্টাফ শাহিনের বদলির বিষটি নিশ্চিত করেন।