বিয়ের আশ্বাসে তরুণীকে ধর্ষণ, ওসি বরখাস্ত

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

তরুণীর প্রয়োজন একটি চাকরি। চাকরি দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েই তরুণীকে ঢাকায় ডেকে এনে ধর্ষণের অভিযোগে রাজধানীর পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হক নয়নকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিভাগীয় মামলা রুজুর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মো. জাবেদ পাটোয়ারী বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিলেন ওই নারী। এরপরেই সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বরখাস্তের নির্দেশ দেয়া হয়।

তরুণীর অভিযোগ, চাকরি দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েই তাকে ঢাকায় ডেকে আনেন পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হক। তারপর হোটেলে রেখে তরুণীকে ধর্ষণ করেন। অতঃপর তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মাসের পর মাস শারীরিক সম্পর্ক করেছেন ওসি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বিয়ে না করে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন তরুণীর সঙ্গে।

নির্যাতিতা তরুণীর অভিযোগ, এরপর প্রতি সপ্তাহেই তাকে ঢাকায় ডেকে এনে একই হোটেলে নিয়ে যেতেন মাহমুদুল হক। গত বছরের অক্টোবর মাসে তিনি বুঝতে পারেন, অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। এ কথা মাহমুদুল হককে জানালে তিনি ওই তরুণীকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে গর্ভপাত করতে বলেন এবং একপর্যায়ে তার কথায় রাজি হয়ে গর্ভপাত করান ওই তরুণী। তিনি জানান, দু’জনের সম্মতিতে তাদের মধ্যেকার শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও ও ছবিও ধারণ করা হয়েছে, যেগুলো ওই তরুণীর কাছে রয়েছে।