বিশ্বকাপ দলে সৌম্য-শরিফুল!

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। টিম ম্যানেজমেন্টের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছেন, অন্তত দুটি পরিবর্তন করবে বাংলাদেশ। সাব্বির রহমানের বিশ্বকাপ দলে থাকার কোনও সুযোগই নেই। তার পরিবর্তে সৌম্য সরকারকে বেছে নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া বাদ পড়ছেন সাইফউদ্দিন। তার জায়গায় শরিফুল ইসলামকে নেওয়া হচ্ছে।

স্ট্যান্ডবাই তালিকায় থাকা সৌম্য ও শরিফুল ত্রিদেশীয় সিরিজে ঠিকঠাক মেলে ধরতে না পারলেও তাদের ইনটেন্ট ভালো থাকায় অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে সুযোগ পাচ্ছেন। বিশ্বকাপে সরাসরি সুপার টুয়েলভে খেলা দলগুলোর জন্য ১৫ থেকে ২১ অক্টোবর খেলোয়াড় পরিবর্তনের সুযোগ রেখেছে আয়োজক কমিটি। এ সময়ে যে কোনও কারণেই দল পরিবর্তন করা যাবে। পরবর্তীতে কেবল ইনজুরির কারণেই দল পরিবর্তন করা যাবে। সেই সুযোগটি নিতে যাচ্ছে বিসিবি।

এরই মধ্যে আইসিসির কাছে দল পরিবর্তনের আবেদন করা হয়েছে। আইসিসি ২৪ ঘণ্টার ভেতরেই তা অনুমোদন দেবে।

ত্রিদেশীয় সিরিজ ছিল বাংলাদেশের পরীক্ষা ও প্রস্তুতির মঞ্চ। কোনও ম্যাচ না জিতে প্রস্ততি ভালো না হলেও পরীক্ষা হয়েছে একাধিক খেলোয়াড়ের। সৌম্য, শরিফুলরা সেই পরীক্ষায় কোনোরকমে পাশ করে উতরে গেছেন। মূল দলে থেকেও জায়গা হারাতে হচ্ছে সাব্বির ও সাইফউদ্দিনকে। দুজনের ত্রিদেশীয় সিরিজের পারফরম্যান্সই ছন্নছাড়া। সাব্বির বারবার সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ হয়েছেন। সাইফউদ্দিনের বোলিং কোনও কাজেই আসছে না। পাশাপাশি শতভাগ ফিট কি না তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। এজন্য দুজনকে দল থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তবে সৌম্য যেভাবে মূল দলে ঢুকে গেলেন সেটাও আদর্শ নয়।  গত নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ খেলে বাদ পড়েছিলেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত খেললেও তার রানখরা কাটেনি। বিপিএলে ভালো করেননি। ঢাকা লিগে অফফর্মের কারণে দল থেকে বাদ পড়তে হয়েছিল। রান পাননি ‘এ’ দলের হয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও। মূলত তার জায়গায় জাতীয় দলে যারা খেলছিল তারা ভালো না করায় আবার তাকে ফেরানো হয়েছিল। ফিরেও আহামরি ভালো করেননি।

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সৌম্য ২৩, পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪ রান করেন। অন্যদিকে সাব্বির চার ম‌্যাচে করেছেন মাত্র ৩১ রান। বাদ পড়ার জন্য এই পারফরম্যান্সই যথেষ্ট ছিল।