বন্দরে কোকেন জব্দ: মাদক ও চোরাচালান মামলায় আরও একজনের সাক্ষ্যগ্রহণ

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম বন্দরে কোকেনের চালান জব্দের ঘটনায় দায়ের করা মাদক ও চোরাচালানের মামলায় আরও একজন আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন।

মঙ্গলবার (১০ মে) চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।মামলার সাক্ষী হলেন, রতন কর্মকার।  তিনি পেশায় একজন অনুবাদকারক।মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রামের খানজাহান আলী লিমিটেডের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ ও তার ভাই মোস্তাক আহম্মদ, কসকো-বাংলাদেশ শিপিং লাইনসের ব্যবস্থাপক এ কে এম আজাদ, সিকিউরিটিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা মেহেদী আলম, সিঅ্যান্ডএফ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, আবাসন ব্যবসায়ী মোস্তফা কামাল, প্রাইম হ্যাচারির ব্যবস্থাপক গোলাম মোস্তফা সোহেল, পোশাক রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান মণ্ডল গ্রুপের বাণিজ্যিক নির্বাহী আতিকুর রহমান, লন্ডন প্রবাসী চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের ফজলুর রহমান ও মৌলভীবাজারের বকুল মিয়া।

মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মো. ফখরুদ্দিন চৌধুরী সংবাদমাধ্যম কে  বলেন, কোকেনের চালান জব্দের ঘটনায় মাদক ও চোরাচালানের মামলায় রতন কর্মকার নামে অনুবাদকারক আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন। আসামি মোস্তফা অনুবাদকারক রতন কর্মকারকে চালানের একটি স্প্যানিশ ভাষার (ল্যাটিন) ডকুমেন্ট ইংরেজিতে অনুবাদ করতে দেন।  তিনি সেই বিষয়ে আজ আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন।

সাক্ষ্য গ্ৰহণে মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটরকে সহযোগিতা করেন, অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট নোমান চৌধুরী, অ্যাডভোকেট সাব্বির আহমেদ শাকিল, অ্যাডভোকেট মো. সাহাব উদ্দীন ও অ্যাডভোকেট আবু ঈসা।