বদলা নিতে লঞ্চ প্যাডসহ ২০টি জঙ্গি ঘাঁটি সক্রিয় করেছে পাকিস্তান

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে ভারতকে জবাব দিতে উঠে পড়ে লেগেছে পাকিস্তান। আন্তর্জাতিক মহলে ভারতকে কোণঠাসা করতে কোনও কমতি করেনি দেশটি। ভারতীয় মিডিয়া দাবি করছে, জম্মু ও কাশ্মীরে শান্তি শৃঙ্খলাতে বিঘ্ন ঘটানোর জন্য মরিয়া পাকিস্তান সেখানে জঙ্গিদের প্রবেশ করানোর জন্য ২০ টি জঙ্গি ঘাঁটি ও তার সঙ্গে ২০ টি লঞ্চ প্যাড নিয়ন্ত্রণরেখার কাছেই সক্রিয় করেছে।

এই সকল জঙ্গিঘাঁটিগুলো ও লঞ্চপ্যাডগুলোর প্রতিটিতে ৫০ জন করে জঙ্গি থাকতে পারে। তারা সেখান থেকেই বিভিন্ন ধরনের কার্যকলাপ শুরু করেছে বলেও খবর পাওয়া গেছে। বলা হচ্ছে, বালাকোটে জঙ্গি ঘাঁটিগুলো ধ্বংস করার পরে সেখানে যে আবার ও কিছু কার্যকলাপ শুরু হয়েছে। বিষয়টি মোদি সরকারকে জানিয়েছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা। এই কার্যকলাপের পরে তারা যে কতটা মরিয়া হয়ে রয়েছে সেই চিত্রটা আবারও সামনে এল।

ভারতীয় মিডিয়া জানায়, পাকিস্তান ২০ টি জঙ্গি ঘাঁটি এবং ২০ টি লঞ্চ প্যাডকে সক্রিয় করেছে। যে কোন ভাবেই হোক তারা উপত্যকার শান্তি নষ্ট করার জন্যই যে এই কাজ করছে তা বোঝা গিয়েছে। তবে ভারতীয় সেনারাও প্রস্তুত উত্তর দেওয়ার জন্য। পাহাড়ে নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হয়েছে। সব দিক নজরে রাখা হচ্ছে।

জম্মু ও কাশ্মীরের ডিরেক্টর জেনারেল দিলবাং সিং জানিয়েছেন, ২০০-৩০০ জঙ্গি সক্রিয় হয়ে রয়েছে তবে সংখ্যাটা বাড়তে বা কমতেও পারে। তারা জম্মু কাশ্মীরে হামলার জন্য প্রস্তুত হয়েই রয়েছে। এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন, কাশ্মীরে ক্রমাগত দুই দেশের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েই চলেছে। পাকিস্তানি সেনা নিয়ন্ত্রণরেখাসহ বিভিন্ন জায়গায় যুদ্ধ বিরতি সংঘর্ষ চালিয়ে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর থেকে পাকিস্তান বারবার ভারতকে আন্তর্জাতিক মহলে কোণঠাসা করার চেষ্টা করছে। নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সমাবেশে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন। তিনি জানান, উপত্যকা থেকে ভারত সেনা তুলে নিলে সেখানে যে কোন ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে তা নিয়ে ভারত পাকিস্তানের ঘাড়েই দোষ চাপাবে।