বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব সেতুর দ্বার খুলল

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: পিরোজপুর তথা দক্ষিণ উপকূলবাসীর দীর্ঘ প্রত্যাশিত কচা নদীর ওপর নির্মিত ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব’ ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর দ্বার উন্মোচিত হলো। রোববার বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে এ সেতুর দ্বার উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা সেতুর উদ্বোধন ও দুই প্রান্তের উপস্থিত উপকারভোগী মানুষের সঙ্গে কথা বলেন।

এ সময় সেতুর পিরোজপুর প্রান্তের অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ জাহেদুর রহমানের সঞ্চালনায় এবং কাউখালী প্রান্তের অনুষ্ঠানে কাউখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মাত খালেদা খাতুন রেখার সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি শুরু হয়।

পিরোজপুর প্রান্তের অনুষ্ঠানে এ সময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম, বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার আমিনুল ইসলাম, সড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শামীম আক্তার, জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ জাহেদুর রহমান, পুলিশ সুপার মো. সাদুর রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য একেএমএ আউয়াল, সাধারণ সম্পাদক এমএ হাকিম হাওলাদার, পিরোজপুরের পৌর মেয়র হাবিবুর রহমান মালেক, বরিশাল ডিজিএফআইর জিএস কর্নেল এসএম আরিফুল ইসলাম, বরিশাল সড়ক বিভাগ সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ, সড়ক বিভাগের প্রকল্প পরিচালক মো. আব্দুল আউয়াল মোল্লা, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী রেবেকা খান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী অধ্যাপিকা লায়লা পারভীন, ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্র সেতুর ডেপুটি প্রজেক্ট ম্যানেজার (চায়না) মিস্টার ওয়েনচানমিং উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় পিরোজপুর প্রান্তে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী তাসলিমা জেরিন ও দশম শ্রেণির ছাত্র আতিফ মোস্তফা কথা বলেন। অনুষ্ঠানে এ সময় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

কাউখালী প্রান্তে ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মাত খালেদা খাতুন রেখা, পিরোজপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী খান পান্না,  সড়ক, সেতু ও মহাসড়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. শামিমুজ্জামান, কাউখালী উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাইদ মিয়া মুন, ভাণ্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মিরাজুল ইসলাম, ইন্দুরকানী উপজেলা চেয়ারম্যান মতিউর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম আব্দুস শহিদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান তালুকাদর পল্টনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় সেতুর উপকারভোগী ভাসমান ব্যবসায়ী সোলায়মান হোসেন ও ক্ষুদ্র চায়ের দোকানি শিপ্রা কুণ্ডুর সঙ্গেও কথা বলেন।

পরে দেশ-জাতি ও মুসলিম উম্মাহর জন্য দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। সেতু উদ্বোধনের পরপরই সেতুর অ্যাপ্রোচের দুই প্রান্তে শত শত নারী-পুরুষ আনন্দ উল্লাস করে উঠে পড়ে এবং সেলফি তুলে উল্লাস প্রকাশ করতে থাকেন।

পিরোজপুর সড়ক বিভাগ জানায়, রোববার মধ্য রাত ১২টা থেকে নতুন টোলের ভাড়া কার্যকর হবে এবং এই রেটে যানবাহন চলাচল শুরু করবে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের জুলাই মাসে নির্মাণ কাজ শুরু করেন ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু চায়না রেলওয়ের সেভেনটিন ব্যুরো গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড। সেতুটির দৈর্ঘ্য ৯৯৮ মিটার, ২৮.৯৮ মিটার উচ্চতা ও ৪৫ মিটার প্রস্ত এবং ৯টি স্প্যান নিয়ে এই সেতুর নির্মাণ ব্যয় ৮৯৮ কোটি টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার ২৪৪ কোটি এবং বাকি ৬৫৪ কোটি টাকা ব্যয় করে চায়না কোম্পানি। সেতুটি চায়না কোম্পানি গত ৭ আগস্ট সড়ক ও জনপথ বিভাগের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করে।