ফের ভারতের সবচেয়ে ‘নিরাপদ শহর’ কলকাতা

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: ভারতের ১৯টি বড় শহর বা মেট্রোপলিটন শহরের মধ্যে কলকাতাই নারীদের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ। এই শহরে ধর্ষণের রিপোর্টের পরিমাণ সবচেয়ে কম। এমন তথ্য উঠে এসেছে দেশটির ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) সমীক্ষায়।

যে সব শহরের জনসংখ্যা ২০ লাখের বেশি, সেই শহরগুলোকে নিয়েই এই সমীক্ষা চালানো হয়েছে।

সম্প্রতি এনসিআরবি’র ২০২১ সালের রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ২০২১ সালে কলকাতায় মোট ১১টি ধর্ষণের ঘটনার রিপোর্ট হয়েছে। সেখানে দিল্লিতে দেশের মেট্রোপলিটন শহরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মাত্রায় রিপোর্ট হয়েছে ধর্ষণের ঘটনা। ২০২১ সালে দিল্লিতে এ সংখ্যা ১২২৬।

নারীদের জন্য ভারতের সবচেয়ে বিপজ্জনক তিন মেট্রোপলিটন শহরের তালিকায় দিল্লি ছাড়া অন্য যে দু’টি শহর রয়েছে, সেগুলো হল জয়পুর (৫০২টি ধর্ষণের ঘটনা) এবং মুম্বাই (৩৬৪টি ধর্ষণের ঘটনা)। অন্যদিকে কলকাতার কাছাকাছি নিরাপদ শহরগুলোর মধ্যে রয়েছে কোয়েম্বাতোর (১২টি ধর্ষণের ঘটনা) এবং পাটনা (৩০টি ধর্ষণের ঘটনা)।

এই তালিকায় ভারতের প্রায় সব বড় শহরই রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ইন্দোর (১৬৫টি ধর্ষণের ঘটনা), বেঙ্গালুরু (১১৭টি ধর্ষণের ঘটনা), হায়দরাবাদ (১১৬টি ধর্ষণের ঘটনা) এবং নাগপুর (১১৫টি ধর্ষণের ঘটনা)। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) রিপোর্ট বলছে, ১৯টি মেট্রোপলিটন শহর মিলিয়ে ২০২১ সালে ভারতে ৩২০৮টি ধর্ষণের ঘটনার রিপোর্ট হয়েছে।

তবে কলকাতা এর আগেও প্রত্যেক বছরই নারীদের নিরাপত্তার নিরিখে ভারতের অন্য বড় শহরগুলোর তুলনায় এগিয়ে ছিল। ২০২১ সালে এই শহরের ১১টি ধর্ষণের ঘটনা রিপোর্ট করা হয়, ২০১৯ সালে ১৪টি।

সব মিলিয়ে কলকাতার অপরাধের হার গত ৭ বছরে একটু একটু করে কমেছে। এমনই বলা হয়েছে রিপোর্টে। ২০২১ সালে নথিবদ্ধ হওয়া অপরাধের সংখ্যা ১৪৫৯১, ২০২০ সালে তা ছিল ১৮২৭৭, ২০১৪ সালে সেটিই ছিল ২৬১৬১। এ প্রসঙ্গে কলকাতার পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েল বলেছেন, সাধারণ মানুষের সমর্থন এবং কলকাতার পুলিশকর্মীদের দক্ষতা আর পরিশ্রমের কারণেই এ ঘটনা ঘটেছে।

খুন বা খুনের চেষ্টার মতো অপরাধও কলকাতায় বেশ কম। ২০২১ সালে এই দুই অপরাধের সংখ্যা যথাক্রমে ৪৫ এবং ১৩৫। ২০১৮ সালে এটিই ছিল ৫৩ এবং ১২১। মুক্তিপণের দাবিতে অপহরণের সংখ্যা ২০২১ সালে ১০টি। যা দিল্লি (১৭টি) এবং চেন্নাই (১৬টি)-এর তুলনায় কম।