ধর্ম অবমাননা: স্কুল শিক্ষকের ৮ বছরের কারাদণ্ড

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: ফেইসবুকে ইসলাম নিয়ে মন্তব্য করে ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত’ দেওয়ার অভিযোগে তথ্য-প্রযুক্তি আইনের এক মামলায় এক হিন্দু স্কুল শিক্ষককে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে চট্টগ্রামের একটি আদালত।

সোমবার (৪ জুলাই) চট্টগ্রামের বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবীর পাঁচ বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত দেবব্রত দাশ দেবু নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার চৌমুহনি উচ্চ বিদ্যালয়ের হিন্দু ধর্মের সহকারী শিক্ষক ছিলেন। হাতিয়া উপজেলাতেই তার বাড়ি।

রায়ে আট বছরের কারাদণ্ডের পাশাপাশি ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে তাকে। ওই টাকা দিতে না পারলে তাকে আরও ছয় মাসের কারা ভোগ করতে হবে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী গণমাধ্যমকে জানান, শিক্ষক দেবব্রত দাশ দেবু রায় ঘোষণার সময় আদালতে হাজির ছিলেন। সাজা ঘোষণার পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

“ওই স্কুল শিক্ষক দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছিলেন। ছয়জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত তাকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।”

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১৫ ও ২৮ অক্টোবর ফেইসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে মন্তব্য করেন দেবব্রত দাশ দেবু। এরপর তার বিরুদ্ধে ‘ধর্ম অবমাননার’ অভিযোগ তুলে ৩১ অক্টোবর তার স্কুলের সামনে কিছু লোক মানববন্ধন করে।

পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে।

২০১৮ সালের ১০ জুন ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ মামলার অভিযোগ গঠন করেন এবং পরে মামলাটি বিচারের জন্য চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়।